এন্ড্রয়েড মোবাইল স্লো কাজ করছে? এন্ড্রয়েড মোবাইল ফাস্ট করার সেরা ৫ টি উপায় - ABC Media BD

Breaking

Thursday, January 9, 2020

এন্ড্রয়েড মোবাইল স্লো কাজ করছে? এন্ড্রয়েড মোবাইল ফাস্ট করার সেরা ৫ টি উপায়


এন্ড্রয়েড মোবাইল ফাস্ট করার উপায়-

আমরা সবাই যখন নতুন একটি এন্ড্রয়েড মোবাইল  কিনি তখন সেটার উপর একটু বেশি যন্ত নেয়। কিন্ত যত দিন যায় ততো যন্তের পরিমানটা কমে যায়। কি আমি ঠিক বলছি না? আর নতুন এন্ড্রয়েড মোবাইল কেনার সাথে অনেক ফাস্ট কাজ করে। কিন্ত যত দিন যায় ততো স্লো কাজ করে। এতে আমাদের মোবাইল চালাতে বেশ অসুবিধা হয়ে যায়।

এন্ড্রয়েড মোবাইল স্লো কাজ করছে? এন্ড্রয়েড মোবাইল ফাস্ট করার সেরা ৫ টি উপায়

এন্ড্রয়েড মোবাইল স্লো কাজ করছে? এন্ড্রয়েড মোবাইল ফাস্ট করার সেরা ৫ টি উপায়

এন্ড্রয়েড মোবাইল স্লো হয়ে যাবার কারণে "ফোন হ্যাং হয়ে যায়" "স্লো কাজ করে"। এই ধরনের নানা সমস্যার মুখে আমাদের পড়তে হয়। মনে রাখবেন এন্ড্রয়েড মোবাইল স্লো হওয়ার জন্য পুরো দোষটা আমাদের। আমাদের নিজের কারণে ফোন স্লো হয়ে যায়। কারণ, আমরা যখন নতুন ফোন ব্যবহার করি তখন অনেক যন্ত করে ব্যবহার করি। আর যখন ফোন পুরোতন হয়ে যায় তখন ফোনের প্রতি কোনো যন্ত নেয় না। তখন আস্তে আস্তে এন্ড্রয়েড ফোনের উপর খারাপ প্রভাব পড়ে। যার ফলে ফোনের কর্মক্ষমতা কমতে শুরু করে।

আমাদের অনেকের ফোন স্লো হয়ে গেয়ে, হ্যাং করছে, চালাতে সমস্যা হচ্ছে, অ্যাপ ওপেন হতে সময় বেশি নিচ্ছে। এমন সমস্যা যদি আপনাদের এন্ড্রয়েড ফোনে হয়ে থাকে তাহালে সাধারণ কিছু নিয়ম অথবা উপায় ব্যবহার করলে এন্ড্রয়েড ফোন ফাস্ট করে নিতে পারবেন।

সঠিক ভাবে মোবাইল চার্জ দেওয়ার নিয়ম - (ব্যাটারী ভালো রাখার উপয়)

আমি আমার এই আর্টিকেলে এন্ড্রয়েড মোবাইল ফোন ফাস্ট করার ৫ টি উপায় বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করবো। যে উপায় গুলো ব্যবহার করে আপনার Android ফোন দ্রুত কাজ করবে এবং ফাস্ট হয়ে যাবে। চলুন তার আগে আমরা জেনে নেব কি কারণে এন্ড্রয়েড মোবাইল স্লো হয়ে যায়।

এন্ড্রয়েড মোবাইল স্লো হওয়ার কারণ কি?


এন্ড্রয়েড মোবাইল মূলত স্লো হওয়ার মূল কারণ হচ্ছে- রেম (Ram) কম থাকা, প্রসেসর (Processor) স্পিড কম থাকা, ইন্টারনাল স্টোরেজের (Internal storage) কম থাকা ইত্যাদি। এই ৩ টি উপর নির্ভর করে এন্ড্রয়েড মোবাইল স্লো হয়ে যায়। আপনার যখন ফোন কিনবেন তখন বেশি রেম (Ram), প্রসেসর (Processor) এবং ইন্টারনাল স্টোরেজ (Internal  Storage) বেশি দেখে কিনবেন। এতে ফোন সহজে স্লো হবে না এবং হ্যাং করবে না।

আপনার সর্বনিম্ন ২ জিবি রেম (2 GB RAM), ১.৫ প্রসেসর (1.5 Processor) এবং ১৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ (16 GB Internal Storage) দেখে এন্ড্রয়েড মোবাইল কিনবেন। মনে রাখবেন যত এগুলো কম হবে ততো ফোন হ্যাং এবং স্লো হওয়ার পরিমান বেশি হবে।

এন্ড্রয়েড মোবাইল ফাস্ট করার সেরা ৫ টি উপায়


এই উপায় গুলো ব্যবহার করার ফলে আপনার ফোন অনেক ফাস্ট এবং দ্রুত কাজ করবে। তাছাড়া আপনার এন্ড্রয়েড মোবাইল ফোন অনেক ফ্রি হয়ে যাবে ও স্পিড বেড়ে যাবে। আপনারা নতুন ফোন কিনার পরে যেমন স্পিডে কাজা করতো তেমন কাজ করবে।

(১) অপ্রয়োজনীয় অ্যাপস আনইনস্টল করুন


আমাদের প্রায় সবার এন্ড্রয়েড ফোনে এমন অনেক অ্যাপ ইনস্টল করা রয়েছে যেগুলো আমাদের কোনো কাজে আসে না। সেই অ্যাপ গুলো শুধু শুধু ফোনে Ram, Processor এবং Internal Storage এর জায়গা নিয়ে বসে আছে। ফোন স্লো হওয়ার আসল কারণ হলো এই ব্যাকগ্রাউন্ড এ কাজ করতে থাকা এই অ্যাপ গুলো।

আপনার ফোনে যদি এমন কোনো অ্যাপ থাকে যে গুলো আপনার কাজে লাগে না তাহালে দ্রুত অনইনস্টল করে দিন। বাজে অ্যাপ গুলো ফোনের কার্যক্ষমতা কমিয়ে দেয়। যার ফলে ফোন স্লো হয়ে যায়। তাই বাজে অ্যাপ আনইনস্টল করুন, দেখবেন আপনার এন্ড্রয়েড মোবাইল ফোন কতটা ফাস্ট হয়ে গেয়ে। আর কেমন দ্রুত কাজ করছে।

(২) অ্যাপস আপডেট করবেন


আমরা যারা এন্ড্রয়েড মোবাইল ফোন ব্যবহার কর তাদের মধ্যে শতকরা ৩০% মানুষরা অ্যাপস আপডেট (Apps Update) করে না। এর ফলে ধীরে ধীরে অ্যাপস গুলো স্লো হয়ে যায়। আর এর কারণে ফোনও স্লো হয়ে যায় এবং ফোনের কার্যক্ষমতা দিনে দিনে কমে য়ায়।

যারা অ্যাপ ডেপেলার (Apps Developer) রয়েছে তারা অ্যাপ আপডেট (App Update) করার জন্য অথবা ফাস্ট করার জন্য দিন দিন আপডেট করছে। আপডেট করার ফলে অ্যাপ ফাস্ট হবে, হ্যাং করা বন্ধ হবে। তাছাড়া আপনি আরো অনেক সুবিধা পাবেন।

কিভাবে ইউটিউব ভিডিওর ভিউ বাড়বে? (Increase video views)

আপনারা Google Play Store থেকে অ্যাপস গুলো আপডেট করে নিবেন। তার জন্য প্রথমে মোবাইল থেকে play store app এ যাবেন। তারপরে option এ যাবেন। তারপরে my apps and games এ যাবেন। সেখান থেকে আপডেট করবেন।

(৩) Storage Cache সব সময় পরিস্কার রাখবেন


আমরা যারা এন্ড্রয়েড ফোন ব্যবহার করি তাদের মধ্যে শতকারা ৫০% মানুষরা জানি না মোবাইলের ইন্টালনাল স্টোরেজে ক্যাশে (cache) বলে একটি ডাটা (data) জমা থাকে। আপনি যত ফোন ব্যবহার করবেন ততো ডাটা ঔখানে জমা হতে থাকবে। এর ফলে আমাদের এন্ড্রয়েড ফোনের স্টোরেজ কমতে থাকে এবং ফোন ধীরে ধীরে স্লো হতে থাকে।

আপনি এই ক্যাশে ডাটা পরিস্কার করবেন সর্বদা। আপনি যত বার ফোন ব্যবহার করবেন ততো বার ক্যাশে ডাটা পরিস্কার করবেন। এর ফলে আপনার ফোন ফাস্ট হবে এবং স্পিড বৃদ্ধি পাবে। cache data পরিস্কার করার জন্য Settings গিয়ে Storage গিয়ে clear cache data করবেন।

(৪) RAM Booster Apps ব্যবহার করুন


আপনার এন্ড্রয়েড মোবাইল ফোনের RAM পরিস্কার করার জন্য আপনারা অবশ্যই  RAM Booster Apps ব্যবহার করবেন। কারণ এই অ্যাপ  ফোনের রেম (Ram) পরিস্কার রাখে। আর ফোনের ram পরিস্কার থাকলে ফোন ফাস্ট হয় এবং দ্রুত কাজ করে। এই অ্যাপ ব্যবহার করার ফলে ফোন হ্যাং হবে না।

আপনার Google Playstore থেকে এই অ্যাপ সম্পূর্ণ ফ্রিতে ডাউনলোড করতে পারবেন। আমি নিচে কয়েটি ভালো RAM Booster Apps এর নাম উল্লোখ করছি-

Clean Master - Cheetah Mobile

CC Cleaner - cleaner booster & Optimizer

Speed Booster

Cache Cleaner App

আপনারা এই অ্যাপস গুলো থেকে যে কোনো একটি অ্যাপ ব্যবহার করতে পারেন। আর এর ফলে আপনার ফোন ফাস্ট হবে।

(৫) অপ্রয়োজনীয় অ্যাপস Disable করে দিন


আমি আগে বলেছি ফোনে বেশি অ্যাপস থাকলে ফোন স্লো কাজ করবে। তার জন্য ফোনের অপ্রয়োজনীয় অ্যাপস গুলো disable করে দিন।কারন এই সমস্ত অ্যাপস গুলো অনেক জায়গা নিয়ে বসে থাকে। আর সেই অ্যাপস গুলো আপনার কোনো কাজে লাগে না।

গুগলে যে ১০ টি বিষয়ে সার্চ দিবেন না

হতে পারে সেগুলো ফোনের অ্যাপস। সেগুলো ফোন থেকে UnInstall হবে না। তার জন্য সেগুলো কে disable করে দিতে হবে। এই সব অ্যাপস গুলোর কারণে ৭০% ফোন হ্যাং এবং স্লো হয়ে যায়। যেভাবে এন্ড্রয়েড ফোনে অ্যাপস গুলো disable করবেন-

প্রথমে Setting এ যাবেন। তারপরে installed apps অথবা apps = Select apps = force apps/ disable করে দিবেন। তাহালে আপনার ফোন ফাস্ট এবং দ্রুত কাজ করবো।


সর্বশেষ


আমি আশাকরি উপরের ৫ টি উপায় মেনে চললে আপনাদের এন্ড্রয়েড ফোন আর স্লো হবে নাআপনার ফোন ফাস্ট হয়ে যাবে। আপনারা যদি কোনো বিষয়ে বুঝতে সমস্যা হয় তাহালে নিচে কমেন্ট করুন। আমি দ্রুত উওর দিবো।

No comments:

Post a Comment