ভালো ল্যাপটপ চেনার ১০ টি সহজ উপয় - (ল্যাপটপ কেনার গাইড লাইন) - ABC Media BD

Breaking

Thursday, December 26, 2019

ভালো ল্যাপটপ চেনার ১০ টি সহজ উপয় - (ল্যাপটপ কেনার গাইড লাইন)

ভালো ল্যাপটপ চেনার ১০ টি সহজ উপয় - (ল্যাপটপ কেনার গাইড লাইন)

আপনাদের মধ্যে যারা নতুন একটি ল্যাপটপ কেনার কথা ভাবছেন। তাদের ল্যাপটপ কেনার আগে কিছু কিছু বিষয়ে ভাল করে জানতে হবে। আপনি যে বাজেটের মধ্যে ল্যাপটপ কেনতে চাচ্ছেন সেই বাজেটের মধ্যে ভাল ল্যাটপটটি আপনাকে নির্নয় করতে হবে। আপনি যে বাজেটের মধ্যে কেনুন না কেন তার আগে আপনার ল্যাপটপ সম্পর্কে জানাটা অধিক প্রয়োজন। (How to select good laptop)


ভালো ল্যাপটপ চেনার ১০ টি সহজ উপয় - (ল্যাপটপ কেনার গাইড লাইন)

আমি সর্বপ্রথম যে ল্যাপটপটি কেনেছিলাম তখন আমি ল্যপটপের বিষয়ে তেমন কিছু জানতাম না। তার জন্য প্রথম ল্যাপটপটি কিনে আমি অনেক বড় লস করেছিলাম। কারণ সেটা কেনার আমি আমার কোনো গাইড লাইন না নিয়ে কিনেছিলাম। আর আমি আসলে জানতাম না যে ভালো ল্যাপটপের কি কি বিশিষ্ট থাকে।

এজন্য আমি বড় ভুল করেছিলাম। আমি ৩২ হাজার টাকা দিয়ে একটি ল্যাপটপ কিনেছিলাম কিন্ত সেটা আমি ভালো ভাবে ব্যবহার করতে পারতাম না। এটা ব্যবহার করতে আমার অনেক কষ্ট হয়ে যেতো। সেটার ব্যাটারি ভালো ব্যাকঅপ দিতো না, ডিসপ্লে ছোট ছিলো এবং কোয়ালিটি তেমন ভালো ছিলো না।

ইন্টারনেট থেকে টাকা আয় করার ৫ টি নিশ্চিত উপয় (online taka income)

এছাড়া হার্ডওরয়্যার কনফিগারেশন ভালো না থাকায় প্রায় হ্যাং (hang) হয়ে যেতো। আপনি যদি আমার মতো না জেনে অথবা কোনো গাইড লাইন না নিয়ে ল্যাপটপ কেনার চিন্তা করেন তাহালে আপনারও এমন হতে পারে। আপনার কাজের সময় নানা সমস্যা দেখা দিতে পারে। শেষে দেখা যাবে আপনার ল্যাপটপ কেনার টাকাগুলো বিথা গেছে।

তারপর আমি ভালো ল্যাপটপ চেনার উপয় গুলো জেনে এবং ল্যাপটপ কেনার আগে যেসব বিষয়ে জানতে হয় সেগুলো জেনে দ্বিতীয় বার ৩৩ হাজার টাকা দিয়ে একটি ল্যাপটপ কিনছে। আর সেটা ভালো কাজ করছে। এবং আমি দ্বিতীয় ল্যাপটপটি কিনে খুব সন্তষ্ট। এটা অনেক ফাষ্ট কাজ করে এবং এটার ডিসপ্লে কোয়ালিটি অনেক ভালো। আর ব্যাটারি ব্যাকঅপ ও ৬ ঘন্টার বেশি দেয়।

আপনি যখন একটি ল্যাপটপ কিনতে যাবেন তখন আপনার বাজেট এবং কি ধরনের কাজ করবেন সেই অনুসারে ভালো একটি ল্যাপটপ দেখবেন। মনে রাখবেন যে ল্যাপটপে ভালো কনফিগারেশন থাকবে সেই ল্যাপটপ কিনবেন।

এছাড়া আপনি ল্যাপটপ কেনার আগে যে বিষয়ে বিশেষ করে নজর দিবেন সেই বিষয় গুলো আমি নিচে বিরস্তিত ভাবে আলোচনা করছি। এতে করে আপনারা ভালো মানেন ল্যাপটপ বেছে নিতে পারবেন।

ভালো ল্যাপটপ চেনার ১০টি সহজ উপয়


(১) Laptop Display


আপনি যখন একটি নতুন ল্যাপটপ কিনবেন তখন দেখবেন ল্যাপটপ ডিসপ্লে (Laptop display) যেন  Full HD (1920 x 1080) অথবা 1080P Resolution থাকে। Full HD Display থাকলে আপনি গেম খেলে এবং ভিডিও দেখে অনেক মজা পাবেন।

আর আপনি যদি বাজেট আরো বেশি হয় তাহালে আপনি Retina Display (2304 x 1440) অথবা QHD (2560 x 1440) 2K এ রকমের হাই কোয়ালিটি ডিসপ্লে নিতে পারেন।

(২) Laptop Screen Size


আপনি প্রয়োজন অনুসারে আপনি Laptop Screen Size নিবেন এতে কিছু বলার নেই। কারণ সেটা সম্পর্ন নির্ভর করে আপনি কি কাজ করবেন সেটার উপর। আপনি যদি গেম খেলার জন্য ল্যাপটপ কিনতে চান তাহালে একটি বড় স্কিনের ল্যাপটপ কিনবেন। যেমন- ১৭", ১৮", ১৯" এতে আপনি গেম খেলে মজা পাবেন।

আর যারা সব জায়গায় ল্যাপটপ নিয়ে যেতে চান তারা একটি ছোট স্কিনের ল্যাপটপ কিনবেন। যেমন- ১৩", ১৪", ১৫" কারণ এটা ওজনে একটু কম হয়। যার ফলে আপনি খুব সহজে বহন করতে পারবেন।

(৩) Latest Windows Os


ল্যাপটপ এবং কম্পিউটারে সব চেয়ে বেশি ব্যবহার করা হয় "Windows Operating System" সেই জন্য ল্যাপটপ কেনার আগে অবশ্যই দেখে দিতে হবে সর্বশেষ Windows Os দেওয়া আছে কিনা।

আমরা Latest Windows Os বলতে এটাকে বুঝাচ্ছি "Windows 10" "Windows 10 Pro" "Windows 10 Home" এই সব windows গুলো আপনার ল্যাপটপে দেওয়া আছে কিনা সেটা দেখতে হবে।

মনে রাখবেন আপনার ল্যাপটপে যেন পুরাতন windows system না দেওয়া থাকে। যেমন- "Windows 7" "Windows 8" এই দিকে বিশেষ ভাবে নজর দিবেন।

(৪) Laptop CPU

সব ধরনের ল্যাপটপ এবং কম্পিউটারের কর্ম ক্ষমতা নির্ভর করে CPU এর উপরে। CPU মানে Central Processing Unit. CPU কে বলা হয় ল্যাপটপ ও কম্পিউটারের মগজ। কিন্ত শতকারা ৭৫% মানুষরা ল্যাপটপ কেনার সময় Processor দেখে না। আসলে এই ব্যাপারে তাদের কোনো ধারনা নেই।

আপনি যত হাই কোয়ালিটির প্রসেসর (Processor) দেখে কিনবেন ততো দ্রুত কাজ করবে। আর যদি প্রসেসর (Processor) যদি লো কোয়ালিটির হয় তাহালে দ্রুত কাজ করবে না। আপনি কখনো Single core processor এর ল্যাপটপ কিনবেন না।

ডেস্কটপ কম্পিউটার না ল্যাপটপ কোনটা কিনবেন? এবং এর সুবিধা কি কি?

মনে রাখবেন, আপনি সব সময় Intel Core i3, Intel Core i5, Intel Core i7 এমন ল্যাপটপ কিনবেন। এতে আপনি ভালো পরিমানে গ্রাফিক্স (graphics) পাবেন। যার ফলে কাজ করে ভালো পাবেন।

(৫) Laptop Battery


সকল মানুষরা ল্যাপটপ কেনার একটাই উদ্দেশ্য থাকে যে তারা বিভিন্ন জায়গায় নিয়ে ব্যবহার করবে। যেখানে নিয়ে যাবেন সেখানে বিদ্যুতের সংযোগ না থাকতে পারে। যেই জন্য এমন ল্যাপটপ চয়েস করবেন যেন বিদ্যুত ছাড়া ব্যাটারি ৮ থেকে ৯ ঘন্টা ব্যাকঅপ দিতে পারে।

মনে করেন আপনি কোথাও বেড়াতে গেছেন এখন সেখানে বিদ্যুতের ব্যবস্থা নেই এখন আপনার ল্যাপটপের ব্যাটারি ব্যাকঅপ যেন ৮ থেকে ৯ ঘন্টা দেয় সেদিকে নজর দিতে হবে। আপনি ল্যাপটপ কেনার আগে অবশ্যই ব্যাটারি ব্যাকঅপের বিষয়ে জেনে নিবেন।


(৬) Keyboard And Touch Pad


ল্যাপটপ কেনার আগে অবশ্যই আপনি কীবোর্ড (keyboard) দেখে নিবেন। এমন অনেক সময় হয়ে থাকে যে আপনার হাতের সাথে কীবোর্ড ভালো মেস করছে না। আর কীবোর্ডের বাটুন গুলোন কোয়ালিটি ভালো করে দেখে নিবেন।

আর অবশ্যই দেখবেন আপনার ল্যাপটপের টাচ প্যাডটি আপনার হাতের সাথে ঠিক মতো কাজ করছে কিনা। যদি কাজ না করে তাহালে কিন্ত আপনি বড় সমস্যার মুখে পড়বেন। এছাড়া ল্যাপটপ চার্জে দিয়ে মাউস দিয়েও কাজ করে দেখবেন ঠিক ভাবে কাজ করছে কিনা। অনেক সময় একটু সমস্যা হতে পারে।


(৭) Laptop RAM


ল্যাপটপ দ্রুত কাজ করার জন্য এবং হ্যাং (Hang) না করার জন্য Ram এর গুরুত্ব অপরিশীম। আপনাকে মনে রাখতে হবে ল্যাপটপের Ram যত বেশি হবে ল্যাপটপ ততো বেশি কর্ম ক্ষমতা বেশি হবে। Ram বেশি হলে ল্যাপটপ হ্যাং (hang) করে না।

আপনি যদি ল্যাপটপ নিতে চান তাহালে তাহালে আপনাকে অবশ্যই Ram এর দিকে নজর দিতে হবে। মনে রাখবেন সর্বনিম্ন ল্যাপটপের Ram যেন 4GB হয়। আর আপনার বাজেট যদি বেশি হয় তাহালে 8GB, 16GB Ram নিতে পারবেন।

(৮) Laptop Storage


আপনি ল্যাপটপ কেনার পর তাতে যদি অধিক পরিমানে মুভি, গান, নাটক, গেম, ছবি, সফটওয়্যার রাখতে চান তাহালে অবশ্যই আপনাকে ল্যাপটপের মেমরি (Storage) এর দিকে নজর দিতে হবে। এছাড়া আপনাকে Windows 10 Pro install করে রাখার জন্য অনেক জায়গার প্রয়োজন হবে।

এর জন্য ল্যাপটপের 500 GB Storage অথবা 500 GB Hard Disk হলে যথেষ্ট। তাছাড়া আপনার যদি আরো অধিক পরিমানে জায়গায় প্রয়োজন হয় তাহালে 1TB Storage অথবা 1TB Hard Disk নিতে পারেন।

ইউটিউব ১০০০ ভিউতে কত টাকা পাবো? YouTube কত টাকা দেয়? (How YouTube Pay)

আপনার যদি বাজেট বেশি হয় তাহালে আপনি SSD Storage থাকা ল্যাপটপ নিতে পারেন। আমি দ্বিতীয় বার যে ল্যাপটপটা নিয়েছি সেটা SSD Storage রয়েছে। আমার ল্যাপটপে 500 GB Hard Disk রয়েছে। আমি ইচ্ছা করলে আরো বেশি Hard Disk লাগিয়ে নিতে পারবো। আর 500 GB Hard Disk এমনে যথেষ্ট।

(৯) Laptop Brand


আপনারা যখন একটি ল্যাপটপ কিনবেন তখন অবশ্যই সেটা কোন কোম্পানির ল্যাপটপ সেটার প্রতি অবশ্যই গুরুত্ব দিতে হবে। আপনি বাজারে কম দামের নতুন নতুন কোম্পানির ল্যাপটপ পাবেন। কিন্ত সেই ল্যাপটপ আপনি কিনলে কিন্ত চরম লস করবেন।

আর এর একটা বিশেষ কারণ রয়েছে আর সেটা হচ্ছে Warranty. আপনি ল্যাপটপের Warranty পাবেন ঠিকই কিন্ত সমস্যা হলে আসে পাশে সার্ভিস সেন্টার পাবেন না। এজন্য আপনাকে সব সময় ভালো কোম্পানির (Brand) এর ল্যাপটপ কিনতে হবে।

আমি কিছু ভালো ল্যাপটপ ব্রান্ড এর নাম উল্লেখ করছি- HP, Lenovo, Dell, Acer, Asus ইত্যাদি। আর এই গুলোর সার্ভিসিং সেন্টার (Service Center) প্রায় সব জায়গায় রয়েছে। কোনো সমস্যা হলে খুব সহজে সার্ভিসিং সেন্টার (Service Center) থেকে সমাধান করতে পারবেন।

ল্যাপটপের যদি Warranty থাকা সময়ের মধ্যে কোনো সমস্যা অথবা নষ্ট হয় তাহালে ঠিক করে নিতে পারবেন সম্পর্ন ফ্রিতে। সেজন্য নিজের ল্যাপটপ কেনার আগে ব্রান্ড ঠিক করে নিবেন।

(১০) Other Features And Functions


ল্যাপটপের এই সব কিছু নজর দেওয়ার পর আপনাকে আরো কিছু সাধারন features এবং functions এর দিকে নজর দিতে হবে। সেগুলো নিচে আমি উল্লেখ করছি-

SUB 3.0 port
DVD Writer
Driver Software Download Install
DVD Drive
DVD Disc
Bootable Disc
USB Port Pendrive অথবা External Storage দিয়ে দ্রুত File Transfer হচ্ছে কিনা সেটা দেখতে হবে।

এইগুলো আপনার ল্যাপটপের রয়েছে কিনা সেটা অবশ্যই দেখতে হবে। এগুলো ও ল্যাটপের একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।

সর্বশেষঃ


ল্যাপটপ কেনার জন্য কি কি বিষয়ের উপর নজর দিতে হবে তো আপনারা আশাকরি জানতে পেরেছেন। আমি আশা আপনাদের আর ল্যাপটপ কিনতে সমস্যা হবে না। আপনারা সব সময় ল্যাপটপের Ram এবং Processor এর দিকে নজর দিতে হবে। ল্যাপটপের Ram এবং Processor যত বেশি হবে ততো ল্যাপটপ ভাল হবে। আপনারা অবশ্যই  ল্যাপটপ কেনার গাইড  বুঝতে পারছেন।

2 comments: