মোবাইল দিয়ে ভিডিও এডিটিং করার সেরা ৮ টি এন্ড্রয়েড অ্যাপ - (২০২০) - ABC Media BD

Breaking

Friday, December 13, 2019

মোবাইল দিয়ে ভিডিও এডিটিং করার সেরা ৮ টি এন্ড্রয়েড অ্যাপ - (২০২০)


বর্তমানে অনেকে রয়েছে যারা ইউটিউবিং করছে মোবাইল দিয়ে এবং তারা সফলতা পেয়েছে। এবার আপনি যদি মোবাইল দিয়ে ভিডিও এডিটিং করতে চান তাহালে আপনাকে কিছু সহজ এন্ড্রয়েড অ্যাপ ( apps)  ব্যবহার করতে হবে। তবে, বেশিভাগ মানুষরা "ইউটিউবের ভিডিও এডিট" করার জন্য কিছু অ্যাপ (apps) ব্যবহার করছে।

মোবাইল দিয়ে ভিডিও এডিটিং করার সেরা ৮ টি এন্ড্রয়েড অ্যাপ  - (২০২০)
মোবাইল দিয়ে ভিডিও এডিটিং করার সেরা ৮ টি এন্ড্রয়েড অ্যাপ  - (২০২০)


এই গুলোতে আপনি প্রফেশনাল (professional) ভাবে ভিডিও এডিট করতে পারবেন। যেমন ভিডিও ল্যাপটপ এবং কম্পিটারের সফটওয়্যার দ্বারা করতে পারবেন। আপনি যদি এখন ইউটিউবের জন্য ভিডিও তৈরি করতে চান তাহালে, আপনাকে ল্যপটপ, কম্পিটার দরকার হবে না। Google Plystore থেকে আপনি এমন অনেক ভিডিও অ্যাপ (apps) ডাউনলোড করতে পারবেন। যার দ্বারা আপনি ইউটিউবের জন্য প্রফেশনাল (professional) ভিডিও এডিটিং করতে পারবেন।

এই সফটওয়্যার গুলোর দ্বারা আপনি ভিডিওতে Background music দেয়া, Text লেখা, Thumbnail এড করা, ভিডিও এর বিভিন্ন অংশ কাটা, Headline যোগ করা, Video effect ব্যবহার করা, আলদা আলদা ভিডিও যোগ করা, Thumbnail যোগ করা। এছাড়া আরো অনেক কিছু এই ভিডিও এডিটিং অ্যাপ (apps) দিয়ে করতে পারবেন।

কোন বিষয় নিয়ে ব্লগ তৈরি করবেন? (লাভজনক নিশ আইডিয়া)

আপনি যদি একজন YouTuber হয়ে থাকেন তাহালে এই ছোট ছোট ভিডিও এডিটিং অ্যাপ গুলো আপনার খুব কাজে লাগবে।

এন্ড্রয়েড মোবাইলে ভিডিও এডিট করার সেরা ৮ টি অ্যাপ


আপনাদের একটা কথা মনে রাখতে হবে যে আপনারা যদি এই সকল অ্যাপ গুলো ডাউনলোড করতে চান তাহালে google Plystore থেকে ডাউনলোড করতে পারবেন। এই অ্যাপ গুলো সব ফ্রিতে ডাউনলোড করতে পারবেন, এর জন্য কোনো চার্জ দিতে হবে না।

তবে, কিছু কিছু অ্যাপ রয়েছে যেগুলো পুরোপুরিভাবে ব্যবহার করতে চাইলে আপনাকে অল্প কিছু টাকা ব্যায় করতে হবে। আপনি যদি নিজের ইউটিউব চ্যালেনকে সিরিয়াস (series) নিয়ে ভিডিও এডিটিং করে আবলোড করতে চান তাহালে এই সল্প পরিমানে টাকা দিতেই পারেন। (Best Android video editing apps)


(১) Kinemaster-pro


মোবাইল দিয়ে ভিডিও এডিট করার জন্য Kinemaster এমন একটি ভিডিও এডিটিং অ্যাপ যার মাধ্যমে আপনারা সব প্রকার ভিডিও  প্রফেশনাল (professional) এবং এডভ্যান্স (advance) এডিট করতে পারবেন। এই অ্যাপ থেকে আপনারা ল্যাপটপ, কম্পিউটার সফটওয়্যার এর মতো ভিডিও এডিট করতে পারবেন। kinemaster এন্ড্রয়েড মোবাইল এর জন্য অনেক শক্তিশালী (powerful).

Blogger vs WordPress : ব্লগ তৈরির জন্য কোনটা ভালো এবং কেন

আপনি খুব সহজে এই ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার ব্যবহার করতে পারবেন এবং সকল features গুলো ব্যবহার করতে পারবেন।

kinemaster আপনি সম্পর্ন ফ্রিতে ব্যবহার করতে পারবেন। কিন্ত আপনি যদি এটার watermark সরিয়ে ফুল features ব্যবহার করতে চান তাহালে আপনাকে কিছু ডলার খরচ করতে হবে। তবে, খুব বেশি না ৫ থেকে ১০ ডলার দিয়ে apps Plystore কিনতে হবে। তাহালে আপনারা kinemaster pro full version ব্যবহার করতে পারবেন।

(২) PowerDirector


অনন্য অ্যাপ গুলোর মতো powerDirector এ প্রফেশনাল (professional) এবং advance ভিডিও এডিট করতে পারবেন। তবে, powerDirector app আপনি অনন্য ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার এর তুলনায় একটু অলদা কিছু পাবেন। যেমন- আপনি স্লো মিশনে ভিডিও এডিটিং করতে পারবেন।

এছাড়া, আপনি ভিডিও এডিট করে ৭২০, full HD ১০৮০ এবং 4k ভিডিও সেভ (seve) করতে পারবেন। এই সফটওয়্যারে আপনি ল্যাপটপ এবং কম্পিউটার এর মতো বিভিন্ন প্রকারের প্রফেশনাল (professional) ভিডিও এডিট করার টুল (tool) পেয়ে যাবেন।

আমার মতে মোবাইল দিয়ে ভিডিও এডিটিং করার জন্য বেষ্ট অ্যাপ হচ্ছে powerDirector app


(৩) FilmoraGo Free Video Editor


FilmoraGo একটি প্রফেশনাল (professional) ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার। যারা প্রফেশনাল  ইউটিউবার তারা শতকারা ৭০% filmorago ব্যবহার করে। এতে রয়েছে সকল প্রকার Advance functions. যেমন- ভিডিও title যোগ করা, ভিডিও কাটা যায়, ভিডিও সাথে music এবং effects যোগ করা যায়, ফ্রিতে background music ইত্যাদি। এক কথায় সকল functions আপনি পাবেন filmoraGo তে।

FilmoraGo আপনি সম্পর্ন ফ্রিতে ব্যবহার করতে পারবেন। এর সম্পর্ন ফিচারস আপনি ফ্রিতে ডাউনলোড করতে পারবেন। আপনি filmorago তে ভিডিও তৈরি করে খুব সহজে মোবাইলের গ্যালারিতে সেভ (save) করতে পারবেন।

ইউটিউব ভিডিওর জন্য নতুন টপিক কি ভাবে খুজবেন? (কান্টেট আইডিয়া)

FilmoraGo এর কিছু special features পাবেন। যেগুলো আপনি অনন্যা ভিডিও অ্যাপে পাবেন না। এর মধে হচ্ছে- ভিডিও এডিটিং করা অবস্তুায় alltime video দেখতে পাবেন, অনেক বড়ো video effects এবং template দেখতে পাবেন, অনেক প্রকার video editor tools পাবেন। এছাড়া আরো অনেক প্রকার ফিচারস পাবেন। আর এই সব কিছু আপনি পাবেন সম্পর্ন ফ্রিতে।

(৪) Adobe Premiere Clip


Adobe Premiere Clip দিয়ে মোবাইলে ভিডিও এডিটিং খুব ফাস্ট করা যায়। এটার ব্যবহার আপনার অবশ্যই ভালো লাগবে এবং এটা Quick service দিয়ে থাকে সর্বদা।  Adobe Premiere Clip আপনি সম্পর্ন ফ্রিতে ব্যবহার করতে পারবেন। এটার জন্য আপনাকে আলদা ভাবে কোনো চার্জ দিতে হবে না।

Adobe Premiere Clip দ্বারা আপনি professional quality video তৈরি করতে পারবেন। এখানে আপনি কিছু Advance video editing tools পাবেন। যেমন- photo motion, filters, effects, add musics, background add musics, video cutting, trimming, transitions ইত্যাদি।

Adobe Premiere Clip অ্যাপ আপনি সম্পর্ন ফ্রিতে google Plystore থেকে ডাউনলোড করতে  পারবেন।

(৫) VivaVideo - editor and phone movie


মোবাইল দিয়ে ভিডিও এডিটিং করার জন্য VivaVideo সেরা বলে প্রমাণীত হয়েছে। কিছু কিছু  Android blogger রা VivaVideo video editor কে সেরা বলে কয়েকবার প্রচার করেছে। এই অ্যাপ দিয়ে আপনারা প্রফেশনাল ভাবে ভিডিও এডিট করতে পারবেন।

ইউটিউব ১০০০ ভিউতে কত টাকা পাবো? YouTube কত টাকা দেয়? (How YouTube Pay)

VivaVideo তে আপনি ভিডিও কাটা, ভিডিও জোড়া, video effects, emerging, subtitle ইত্যাদি আরো অনেক কিছু ফিচারস পাবেন। VivaVideo ২০০ মিলিয়ন এর বেশি মানুষরা তাদের এন্ড্রয়েড ফোনে ব্যবহার করছে। যার কারণে এটাকে বেস্ট এন্ড্রয়েড ভিডিও এডিটিং অ্যাপ হিসাবে প্রমান পেয়েছে।

(৬) Quick Video editor


Quick Video editor Android app দিয়ে নিজের বানানো মোবাইল ফোনের ভিডিও এডিট করা যায়। আপনারা নিজের মোবাইল ফোনের গ্যালারি ইচ্ছা মতো ভিডিও বেচে নিয়ে এডিটিং করতে পারবেন। Quick apps দিয়ে আপনি নিজের ভিডিও ক্লিপ automatic video creation function দ্বারা ভিডিও এডিট করতে পারবেন। এতে আপনি বেশ কিছু সাধারাণ টুল (tool) পাবেন। যেমন- টেক্সট (text) ব্যবহার করা, ভিডিও ক্রপ (crop) করা, বিভিন্ন প্রকারের এফেক্টস (efforts) ইত্যাদি। এছাড়া আরো নানা ধরনের টুল (tool) আপনারা পেয়ে যাবেন।

Quick Video editor Android app আপনি সম্পর্ন ফ্রিতে ডাউনলোড করতে পারবেন। এটার জন্য কোনো প্রকার চার্জ দিতে হবে না। আপনি google Plystore থেকে ডাউনলোড করে এই অ্যাপ ব্যবহার করতে পারবেন।

(৭) Magisto - editor & slideshow maker


সারা বিশ্বে প্রায় ১০০ মিলিয়ন মানুষরা Magisto - editor & slideshow maker app ব্যবহার করে। এই অ্যাপে AI ফাস্কশন ব্যবহার করে আপনারা ইচ্ছা মতো automattically ভিডিও তৈরি করতে পারবেন। কিন্ত তার আগে ফোনের গ্যালারি থেকে কিছু ভিডিও অথবা ছবি বেচে নিতে হবে।

ইউটিউবে ভিডিও কিভাবে আপলোড করবেন? (কম্পিটার এবং মোবাইলে)

Magisto - editor & slideshow maker app সম্পর্ন ফ্রিতে ডাউনলোড করতে পারবেন। এটার জন্য আলদা ভাবে কোনো প্রকার চার্জ দিতে হবে না। আপনারা google Plystore থেকে Magisto ফ্রিতে ডাউনলোড করতে পারবেন। এটার ব্যবহারের ৩ স্টেপ রয়েছে, য়ার দ্বারা আপনারা আকর্ষিত এবং প্রফেশনাল ভিডিও তৈরি করতে পারবেন।

(৮) AndroVid - Video Edtitor, Video Maker, Photo Edtitor


সারা বিশ্বে ১০ মিলিয়ন মানুষরা AndroVid app ব্যবহার করে। এই অ্যাপে আপনি ছবি দিয়ে প্রফেশনাল ভিডিও তৈরি করতে পারবেন। এটা আপনি সম্পর্ন ফ্রিতে ডাউনলোড করতে পারবেন। এটার জন্য কোনো প্রকার চার্জ দিতে হবে না।

AndroVid দিয়ে আপনি ভিডিও কাটা, টেক্সট (text) ব্যবহার করা, ভিডিও ক্রপ (crop) করা, বিভিন্ন প্রকারের এফেক্টস (efforts) ইত্যাদি দিতে পারবেন।

সর্বশেষঃ

উপরের সকল প্রকার অ্যাপ দিয়ে আপনারা মোবাইলে সুন্দর ভাবে ভিডিও এডিট করতে পারবেন। যারা ভিডিও তৈরির কাজ করেন তারা উপরের যে কোনো একটি অ্যাপ ব্যবহার করতে পারেন। উপরের অ্যাপ গুলো আপনারা সম্পর্ন ফ্রিতে ব্যবহার করতে পারবেন এবং ল্যাপটপ, কম্পিউটার এর মতো প্রফেশনাল ভিডিও তৈরি করতে পারবেন। (Mobile video editor)

আমার আর্টিকেলটি সম্পর্ন পড়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। কোনো বিষয়ে বুুঝতে সমস্যা হলে নিচে কমেন্ট করে জানাবেন। ইনশাল্লাহ আমি উওর দিবো।

No comments:

Post a Comment