কোন বিষয় নিয়ে ব্লগ তৈরি করবেন? (লাভজনক নিশ আইডিয়া) - ABC Media BD

Breaking

Wednesday, December 11, 2019

কোন বিষয় নিয়ে ব্লগ তৈরি করবেন? (লাভজনক নিশ আইডিয়া)



আমরা সবাই যখন একটি ব্লগ তৈরি করার কথা চিন্তা করি অথবা ভাবি তখন সর্বপ্রথম একটা বিষয়ে চিন্তাজনক হলো "কোন বিষয় অথবা নিশ (niche) নিয়ে ব্লগ তৈরি করবো" কোন বিষয় নিয়ে ব্লগ তৈরি করলে সব চেয়ে লাভজনক হবে। আর দেখতে হবে ব্লগের জন্য "profitable niche" কোনগুলো।
কোন বিষয় নিয়ে ব্লগ তৈরি করবেন? (লাভজনক নিশ আইডিয়া)
কোন বিষয় নিয়ে ব্লগ তৈরি করবেন? (লাভজনক নিশ আইডিয়া)

এছাড়া, কোন বিষয় নিয়ে ব্লগ তৈরি করলে গুগল এডসেন্স থেকে বেশি বেশি ট্রফিক বা ভিজিটর্স পাবো এবং Googel Adsense থেকে বেশি বেশি টাকা আয় করতে পারবো।

আপনারা যারা নতুন ব্লগ তৈরি করবেন এবং করেছেন তারা হয়তো এই বিষয়ে অবশ্যই চিন্তা করছেন অথবা ভাবছেন। কি তাই তো? আপনিও ১০০% এই ব্যপারে ভাবছেন।

কিন্ত, মনে রাখবেন আপনারা এমন বিষয় অথবা নিশ (niche) ব্লগ তৈরি করবেন যা আপনার ব্লগের  ভবিষ্যৎ নির্ধারণ করতে পারে। আর আপনি সব সময় চেষ্টা করবেন আপনি যে বিষয় নিয়ে ব্লগ তৈরি করবেন সেই বিষয় অথবা নিশ (niche) নিয়ে সর্বদা আর্টিকেল তৈরি করবেন।

Blogger vs WordPress : ব্লগ তৈরির জন্য কোনটা ভালো এবং কেন?

আপনি যে বিষয়ে আর্টিকেল ব্লগে পাবলিশ করবেন সেই বিষয়ে মানুষদের যেন জানার আগ্রাহ অথবা চাহিদা থাকে। সেই বিষয়ে মানুষরা যেন গুগলে সার্চ করে। আর সেটা যদি না হয় তাহালে কিন্ত আপনি কোনো দিনও ভালো পরিমানে ট্রফিক বা ভিজিটর্স পাবেন না। এতে করে আপনার আর্টিকেল লেখা বৃথা হয়ে যাবে।

আর একটা কথা মনে রাখবেন আপনার ব্লগে যদি ট্রফিক বা ভিজিটর্স না আসে তাহালে আপনি কখনো গুগল এডসেন্স থেকে টাকা আয় করতে পারবেন না।

সেই জন্য আপনারা যখন একটি ব্লগ তৈরি করবেন তখন অবশ্যই রিচার্জ (research) এবং প্যানিং (planning) করে তারপরে ভালো "blog এর niche" নির্ধারণ করবেন।

সর্বদা এমন বিষয় বা নিশ (niche) বেচে নিবেন যেটার উপর সব সময় ইন্টারনেটে ভালো পরিমানে সার্চ পড়ে। আর এই বিষয়টা গুগলে অনেক জনপ্রিয় এবং প্রচলিত।

আমার যে ব্লগটি আপনারা পড়ছেন সেটার বিষয় অথবা নিশ (niche) হচ্ছে "online income" এবং "Blogging" আর নিশ (niche) মানে হচ্ছে বিষয়। blog niche মানে ব্লগের বিষয়।

আপনারা অনলাইনে বা গুগলে একটু লক্ষ্য করে  দেখবেন বর্তমান সময়ে সবচেয়ে ব্লগিং এর জনপ্রিয় দিক হচ্ছে "Blogging" এবং "online income" এই দুইটা হচ্ছে সবচেয়ে ভালো এবং লাভজনক দিক। আমার ব্লগের বিষয় ও কিন্ত "Blogging" এবং "online income"

ব্লগ কি? কি ভাবে ব্লগ তৈরি করবো (Blog Create)

এজন্য আজ আমি আপনাদের সাথে এই আর্টিকেলের মাধ্যমে বলবো ব্লগের এমন ৯ টি লাভজনক নিশ (niche) এর ব্যপারে। যেগুলো ২০২০ সালে ব্লগের বিষয়ে বা নিশ (niche) হিসাবে খুব ভালো ফল দিবে। আর এই থেকে প্রচুর সংখ্যাখ ট্রফিক বা ভিজিটর্স পাবেন। আর CPC ও অনেক অনেক বেশি মূল্য পাবেন। আপনি "Google AdSense" থেকে কম cpc থেকে বেশি টাকা আয় করতে পারবেন।

তার জন্য আমি নিচে এমন কিছু বিষয় বা নিশ (niche) নিয়ে আলোচনা করবো যেগুলো থেকে আপনি google থেকে প্রচুর পরিমানে ট্রফিক বা ভিজিটর্স পাবেন এবং "গুগল এডসেন্স" থেকে ভালো পরিমানে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

(১) Personal Finance Niche

বর্তমান সময়ে আমাদের অনেক কষ্টকরে টাকা আয় করতে হয়। আমরা কেউ চাইনা যে আমাদের কষ্টের টাকা নষ্ট হয়ে যাক। তার জন্য আমরা সব সময় টাকা সেভ (save) করার কথা ভাবি। Personal finance নিয়ে প্রতিদিন অনেক মানুষরা  গুগলে সার্চ দেয়। তার জন্য আপনি personal finance নিয়ে একটি ব্লগ তৈরি করতে পারেন।

এতে করে আপনি প্রচুরসংখ্যক ট্রফিক বা ভিজিটর্স পাবেন। তাছাড়া "গুগল এডসেন্স" থেকে কম ট্রফিকে ভালো পরিমানে আয় করতে পারবেন। কারণ এই সব finance ওয়েবসাইট গুলো বড়ো অংকের টাকা দেয় গুগলেকে তাদের এড দেখানোর জন্য। আর একটা কথা সবসময় মনে রাখবেন, আপনি যে বিষয়ে ব্লগে আর্টিকেল লিখবেন সেই বিষয়ে বেশি এড দেখাবে গুগল এডসেন্স।

personal finance আসলে অনেক বড় ক্যাটাগরি ও সাব-ক্যাটাগরি রয়েছে। আবার এর অনেক টপিক রয়েছে যেমন- Budget ও money management, Lone, LIC, Investment, Mutual funds ইত্যাদি। এই সব বিষয়ে আপনি ব্লগ তৈরি করতে পারবেন।

কিন্ত মনে রাখবেন এই সকল বিষয়ে আর্টিকেল লিখতে হলে আপনাকে অবশ্যই ধারনা থাকতে হবে। তা না হলে আপনি প্রচুর সমস্যায় পড়তে পারেন।

(২) Health And Fitness

কথায় আছে যে, স্ব্যাস্থ সকল সুখের মূল। আমরা স্ব্যাস্থ ভালো রাখার জন্য গুগলে বিভিন্ন বিষয় লিখে সার্চ দেয়। আর ইন্টারনেটে সব সময় Health and fitness বিষয়ে জনপ্রিয় এবং চাহিদা থাকে। আর এই বিষয়ে চিরদিন চাহিদা থাকবে।

কি ভাবে সহজে Gmail Account খুলবেন

কারন, আমরা প্রতিদিন ইন্টারনেটে শারীরিক মানসিক অথবা স্ব্যাস্থের নানা বিষয়ে সার্চ দেয়। আপনি চাইলে মানুষের স্ব্যাস্থ সুস্থ রাখতে এই বিষয়ে একটি ব্লগ তৈরি করতে পারেন।

এছাড়া স্ব্যাস্থের আর একটি জনপ্রিয় বিষয় রয়েছে। যার নাম "Weight loss" বর্তমানে বিশ্বে লক্ষ লক্ষ মানুষ রয়েছে যারা তাদের  শরীরের ওজন কমাতে চাই। তারজন্য তারা ঘরে বসে ইন্টারনেটের মাধ্যমে বিভিন্ন উপয় খুজে বের করতে চাই।

এছাড়া, Yoga, dietinh, herbal remedias, natural therapies and healthy living, meditation এই সকল বিষয়গুলো ইন্টারনেটে খুব জনপ্রিয়। আপনি চাইলে এই বিষয়ের উপর ব্লগ তৈরি করতে পারেন।

এ থেকে আপনি প্রচুরসংখ্যক ট্রফিক বা ভিজিটর্স পাবেন এবং google Adsense থেকে ভালো পরিমানে টাকা আয় করতে পারবেন।

(৩) Make Money Online

আপনি আমি সব সময় চেষ্টা করি যে কিভাবে ঘরে বসে অনলাইন থেকে টাকা আয় করা যায়। এই জন্য প্রতিদিন হাজার হাজার লক্ষ লক্ষ মানুষরা ইন্টারনেটে গিয়ে সার্চ দেয় কিভাবে অনলাইন থেকে টাকা আয় করা যায়।

বর্তমানে "অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম" বিষয়টি অনেক কমেন হয়ে গেছে এবং এইটা অনেক অনেক লাভজনক। আপনি চাইলে "অনলাইন টাকা আয়" নিয়ে একটি ব্লগ তৈরি করতে পারেন। আর এর থেকে আপনি অনেকটা কম সময়ে গুগল সার্চ এবং অনন্য সার্চ থেকে প্রচুরসংখ্যক ট্রফিক বা ভিজিটর্স পাবেন। কারণ এটার চাহিদা এবং জনপ্রিয়তা অনেক বেশি।

তবে আপনি চাইলে "Make money online" নিয়ে একটি ব্লগ তৈরি করতে পারেন। তাছাড়া "make money online" এর আরো সাব-ক্যাটাগরি রয়েছে। যেমন- YouTube, Freelancer, Blogging, Facebook marketing, Affiliate marketing, Outsourcing. ইত্যাদি।

(৪) Food And Recipes

বর্তমানে ঘরের গৃহিণীরা রান্না করতে খুব ভালোবাসে। তারা নতুন নতুন food and recipes তৈরি করার জন্য ইন্টারনেটে সার্চ দেয়। আপনার যদি বিভিন্ন রকমের food and recipes সম্পর্কে জানা থাকে তাহালে আপনি এই নিয়ে একটি ব্লগ তৈরি করতে পারেন।

ইউটিউব ভিডিওর জন্য নতুন টপিক কি ভাবে খুজবেন? (কান্টেট আইডিয়া

কারন, গুগলে প্রতিদিন প্রচুরসংখ্যক নানা প্রকারের food and recipes তৈরি করার সার্চ দেওয়া হয়। এতে করে আপনি প্রচুর পরিমানে অল্প সময়ে ট্রফিক বা ভিজিটর্স পেয়ে যাবেন। কিন্ত আপনার যদি এই সম্পর্কে ধারনা না থাকে তাহালে আপনি এই সম্পর্কে ব্লগ আর্টিকেল লিখতে পারবেন না।

এছাড়া, Google Adsense থেকে বিঙ্গাপন এর মাধ্যমে প্রতি মাসে ভালো পরিমানে টাকা আয় করতে পারবেন।

(৫) How To Blogs

আপনারা জানেন ব্লগ একটি গুগলের ফ্রি সার্ভিস। আর ফ্রি সার্ভিস হওয়ার জন্য মানুষরা বেশ বেশি ব্যবহার করতে চাই। "How to blogs" মানে ব্লগের বিভিন্ন বিষয়ে ভিন্ন ভিন্ন আর্টিকেল লেখা।

আপনি ব্লগের মাধ্যমে ভিজিটর্সের বিভিন্ন প্রশ্নের উওর দিতে পারবেন। কিভাবে বিভিন্ন জিনিস তৈরি করবেন সেটাও লিখতে পারবেন। How To Blogs এটার সেরা উদাহরন হচ্ছে "Wikihow.con" এই ওয়েবসাইটে আপনি ব্লগের বিভিন্ন প্রশ্নের সমাধান নিতে পারবেন।

আপনি চাইল "Wikihow.com" থেকে সাহায্য নিয়ে ব্লগ তৈরি করতে পারেন। এতে আপনি "Google Search" থেকে প্রচুরসংখ্যক ভিজিটর্স পাবেন। কারণ ব্লগ সম্পর্কে মানুষের জানার শেষ নেই।

(৬) Android Apps

আপনার যদি Android apps সম্পর্কে ভালো ধারনা থাকে তাহালে আপনি এই নিয়ে একটি ব্লগ তৈরি করতে পারেন। কারণ "এন্ড্রয়েড অ্যাপ" সম্পর্কে জানার চাহিদা ইন্টারনেটে খুব বেশি। বর্তমানে বিশ্বে ৮০% মানুষরা এন্ড্রয়েড ফোন ব্যবহার করে।

এই জন্য সকলের এন্ড্রয়েড অ্যাপ সম্পর্কে জানার ইচ্ছা। সেই কারণে গুগল এবং অনন্য সার্চে প্রচুরসংখ্যক মানুষ সার্চ করে। এতে করে আপনারা কম সময়ে প্রচুর ট্রফিক বা ভিজিটর্স পেয়ে যাবেন। যারা Android phone  ব্যবহার করে তারা Android mobile apps সম্পর্কে জানার চেষ্টা করবে ১০০%

(৭) Smartphone

বর্তমানে স্কুল, কলেজের পড়া স্টুডেন্টরা এবং বয়স্ক মানুষরা সবাই smartphone ব্যবহার করে। এন্ড্রয়েড অ্যাপ এর মতো মোবাইল ফোন সম্পর্কে মানুষের জানার শেষ নেই। আপনি আমি যদি একটি মোবাইল ফোন প্রথমে কিনতে যায় তবে সর্বপ্রথমে ইন্টারনেট থেকে দেখে সেই মোবাইল ফোন সম্পর্কে বিরস্তিত জেনে তারপর কিনি।

মোবাইল দিয়ে টাকা আয়

প্রতিদিন ইন্টারনেটে লক্ষ লক্ষ মানুষরা smartphon দাম এবং তার সম্পর্কে জানার জন্য ইন্টারনেটে সার্চ দেয়। আপনি চাইলে smartphone নিয়ে একটি ব্লগ তৈরি করতে পারেন। এতে প্রচুর ট্রফিক বা ভিজিটর্স দ্রুত পেয়ে যাবেন। আর "গুগল এডসেন্স" থেকে ভালো পরিমানে টাকা আয় করতে পারবেন।

(৮) Education And Learning

আপনাদের যদি কোনো বিশেষ বিষয়ে ধারনা থেকে থাকে তাহালে সেই বিষয়ে একটি education and learning ব্লগ তৈরি করতে পারেন। মানুষরা সব সময় ঘরে বসে কোনো জিনিস শেখার চেষ্টা করে। আর সেই বিষয়ে জানার জন্য সর্বপ্রথম ইন্টারনেটে সার্চ করে।

আপনি যে বিষয়ে ভালো ধারনা রাখেন সেই বিষয়ে tutorial এবং learning একটি ব্লগ তৈরি করতে পারেন। যেমন- Blogging Android deployment, tallysoftware, coding, computer coast ইত্যদি। এই বিষয়ে মানুষের জ্ঞান দিতে পারেন। এতে আপনার নিজের জ্ঞান বৃদ্ধি পাবে এবং গুগল এডসেন্স থেকে টাকা আয় করতে পারবেন।

(৯) Blogging

বর্তমান সময়ে সব চেয়ে সহজ এবং লাভজনক বিষয় হচ্চে Blogging করা। বিভিন্ন মানুষরা অনলাইনে টাকা আয় করার জন্য বিভিন্ন মাধ্যমে চেষ্টা করছে। তবে আমি মনেকরি অনলাইনে টাকা আয় করার সেরা উপয় হচ্ছে ব্লগিং করা।

তারজন্য, প্রতিদিন হাজার হাজার লক্ষ লক্ষ মানুষরা ব্লগিং সম্পর্কে জানার জন্য গুগলে সার্চ দেয়। আপনি চাইলে ব্লগিং নিয়ে একটি ব্লগ তৈরি করতে পারবেন। বর্তমানে ব্লগিং নিশ (niche) অনেক জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

তার জন্য আপনারা Blogging করে কম সময়ে প্রচুরসংখ্যক ট্রফিক বা ভিজিটর্স পাবেন এবং "গুগল এডসেন্স" থেকে প্রতিমাসে ভালো পরিমানে টাকা আয় করতে পারবেন।

সর্বশেষঃ

কোন বিষয়ে ব্লগ তৈরি করবেন? কোন ব্লগিং নিশ লাভজনক হবে এটা নিয়ে উপরে বিরস্তিত আলোচনা করছি। আমি আশাকরি আপনারা অবশ্যই প্রশ্নের উওর পেয়ে গেছেন। আমি ব্লগের সেরা ৯ টি নিশ বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছি।
"ব্লগের সেরা ব্লগিং আইডিয়া" গুলো আপনাদের সাথে শেয়ার করছি।

আমার আর্টিকেলটি সম্পর্ন পড়ার জন্য আপনাকে  ধন্যাবাদ। কোনো বিষয়ে জানতে অসুবিধা হলে নিচে কমেন্ট করবেন। ইনশাল্লাহ আমি উওর দিবো। সকলকে ধন্যবাদ।

No comments:

Post a Comment