ইউটিউব SEO কি? ইউটিউব ভিডিওতে এস ই ও (SEO) কি ভাবে করবেন (YouTube SEO Tutorial Bangla) - ABC Media BD

Breaking

Tuesday, November 26, 2019

ইউটিউব SEO কি? ইউটিউব ভিডিওতে এস ই ও (SEO) কি ভাবে করবেন (YouTube SEO Tutorial Bangla)

কেমন আছেন সবাই? আশাকরি ভালো আছেন। হয়তো আপনারা সবাই আমার আর্টিকেলের টাইটেল দেখা বুঝতে পারছেন আজকের আর্টিকেলর বিষয় কি? হা আজ আমি বলবো ইউটিউব SEO কি? ইউটিউব ভিডিও গুলোতে কি ভাবে এস ই ও (SEO) করবেন? এবং ইউটিউব (YouTube) ভিডিও গুলোতে seo করে কি কি লাভ পাবেন। আজকের আর্টিকেলে এই সমস্ত বিষয়ে বিরস্তিত বলবো। (YouTube SEO Tutorial Bangla)

ইউটিউব SEO কি? ইউটিউব ভিডিওতে এস ই ও (SEO) কি ভাবে করবেন (YouTube SEO Tutorial Bangla)


আপনার ভিডিওতে ভিউস আসতেছে না। তার মূল কারণ হচ্ছে আপনি নিজের ভিডিও গুলোতে seo করছেন না। যদি seo করছেন কিন্ত সেই পরিমানে ভিউস পাচ্ছেন না। তাহালে আপনি সেই ভাবে seo করতে পারছেন না। ইউটিউব চ্যালেন ভিডিও আবলোড করার আগে ভিডিওতে ১০০% seo করা খুবই জরুরি। তা না হলে আপনি ভিউস পাবেন না।

আমার কাছে অনেকে প্রশ্ন করে আমার যে, আমার ভিডিও সার্চ দিলে খুজে পায় না। আবার আমার চ্যালেনের ভিডিওতে কম ভিউস হয়, কি করবো? এখন আমার প্রশ্ন হচ্ছে কেন আপনার ভিডিও ভিজিটর্সরা দেখছে না? আবার কেন আপনার ভিডিও গুগল সার্চ অথবা YouTube search রেজাল্টে দেখাচ্ছে না?

এটার একমাএ একটি কারণ। আর সেটা হচ্ছে আপনার ভিডিও seo করা না। আপনি যদিও seo করছেন কিন্ত সঠিক ভাবে করতে পারেন নাই। এটার কারণে আপনার ইউটিউব চ্যালেনে ভিজিটর্স ভিডিও দেখছে না। আর ভিজিটর্সদের সামনে যদি ভিডিও গুলো না যায় তাহালে কি ভাবে ভিজিটর্স দেখবে। আর এই কারণে google search এবং YouTube search এ আপনার ভিডিও গুলো সার্চ রেজাল্টে দেখাচ্ছে না।

সফল ইউটিউবার কি ভাবে হবো? (Successful Youtuber হতে চাই)

এখন তো বুঝলেন seo এর গুরুত্ব। তাহালে কি করলে আপনাদের ভিডিও গুলো ভিজিটর্সরা দেখবে বা ট্রফিক বা ভিজিটর্স পাবেন। তার একটাই উওর হচ্ছে SEO বা search engine optimization এর সঠিক ভাবে ব্যবহার করতে হবে।

এখন আমাদের জানার সময় হয়েছে এক এক করে এই সমস্ত বিষয়ে বিরস্তিত। চলুন নিচে থেকে জেনে নেই-


  • ইউটিউব ভিডিও SEO কি?
  • ইউটিউবের ভিডিও গুলো SEO করা কেন জরুরি
  • ইউটিউব ভিডিও গুলো SEO করবেন কি ভাবে?


ইউটিউব ভিডিও SEO কি?


ইউটিউব ভিডিও seo কি সেটা জানার আগে আপনাদের জানতে হবে Seo কি? SEO নিয়ে আমি আমার এই সাইটে বিরস্তিত ভাবে একটি আর্টিকেল লিখেছি। আপনারা সেটা পড়লে বুঝতে পারবেন। তার পরও আমি একটু বলছি- SEO হচ্ছে search engine optimization. এটার কাজ হচ্ছে অনলাইনে আপনার যে সব ভিডিও বা কন্টেন্ট রয়েছে সেগুলোকে টপ ১০ নং রেজাল্ট এর মধ্যে নিয়ে আসা।

এই সার্চ ইঞ্জিন বলতে আমরা সাধারণত বুঝি Google search, Yahoo search, Bing search, YouTube search ইত্যাদিকে। আপনি এখন আমার ইউটিউব এস ই ও নিয়ে যে আর্টিকেলটি পড়ছেন সেটা কি ভাবে খুজে পেয়েছেন? কারণ আপনি ইউটিউব SEO লিখে গুগলে সার্চ দিয়েছেন তার জন্য আমার এই আর্টিকেলটি খুজে পেয়েছেন।

কিন্ত ইউটিউব SEO কি? এই নিয়ে অনলাইনে হাজার হাজার আর্টিকেল রয়েছে কিন্ত আপনি আমার আর্টিকেলটা কি ভাবে পেয়েছেন? কেন গুগল বা অনন্য সার্চ ইঞ্জিন টপ ১০ এর মধ্যে আমার আর্টিকেলটি রেখেছে। এটার কারণ হচ্ছে - SEO. এস ই ও এর কারণে google search engine খুব সহজে বুঝে গেছে আপনি যে প্রশ্নটি গুগল সার্চ ইঞ্জিনে করেছেন সেটার সঠিক উওর এই আর্টিকেলে দেওয়া আছে। তার জন্য সার্চ ইঞ্জিন এটাকে পট ১০ নংবার এর মধ্যে নিয়ে এসেছে।

আপনি যদি আমার আর্টিকেলের মতো ইউটিউব ভিডিও SEO করতে পারেন তাহালে ইউটিউব সার্চ ইঞ্জিন খুব সহজে আপনার ভিডিও গুলোকে ভিজিটর্সদের সামনে নিয়ে আসবে। এবং সার্চ ইঞ্জিনে প্রথমে দেখাবে। এতে আপনি প্রচুরসংখ্যক ট্রফিক বা ভিজিটর্স পেয়ে যাবেন ফ্রিতে। সাথে সাথে ভিডিও গুলোও রেংক করবে।

তাহালে বলা যায় YouTube Videos SEO হচ্ছে এমন একটি প্রক্রিয়া যার মাধ্যমে গুগল সার্চ এবং ইউটিউব সার্চে আপনার ভিডিও গুলোকে টপ ১০ নংবার এর মধ্যে দেখাবে। মনে রাখবেন এই প্রক্রিয়া ব্যবহার করে Youtuber লক্ষ লক্ষ ভিজিটর্স পেয়ে যান।

ইউটিউব ভিডিও গুলোতে SEO জরুরি কেন?


আপনি যে টপিকের উপর ভিডিও তৈরি করছেন। সেই টপিক দিয়ে ইউটিউবে সার্চ দিয়ে দেখুন। দেখবেন অনেক অনেক ভিডিও ইউটিউবে দেখাবে। তাহালে আপনি যে নতুন ভিডিও তৈরি করছেন সেটা কেন YouTube দেখাবে।

অথবা কেন গুগল সার্চ এবং ইউটিউব সার্চ ইঞ্জিন আপনার ভিডিওকে ভিজটর্সদের সামনে নিয়ে আসবে? তাহালে আপনি কি এখন থেকে আর ভিডিও তৈরি করবেন না। এই ভাববেন যে আমি যে বিষয়ে ভিডিও তৈরি করবো সেটা তো ইউটিউবের কাছে রয়েছে তাহালে কেন আমি আবার ভিডিও তৈরি করবো। আমার ভিডিও তো ইউটিউব দেখাবে না।

আপনি অবশ্যই ভিডিও তৈরি করবেন। কারণ আপনি ভিডিও গুলো তৈরির পরে ইউটিউবে আবলোড দেওয়ার সময় seo করবেন।

এখানে কাজে লাগবে SEO. আপনি যদি সুন্দর ভাবে ভিডিও গুলোকে seo করে গুগলকে এবং ইউটিউবকে বুঝাতে পারেন তাহালে তারা আপনার ভিডিও গুলোকে ভিজিটর্সদের সামনে দেখাবে। সহজ ভাবে বলতে গেলে আপনি যে কি টপিক নিয়ে ভিডিও তৈরি করছেন সেই টপিকে আগে ইউটিউবকে বুঝাতে হবে। তাহালে আপনি ট্রফিক বা ভিজিটর্স খুব সহজে পাবেন।

যখন ভিজিটর্সরা কোনো ভিডিও সার্চ করবে তখন ঔ সার্চের টপিক অনুসারে যদি আপনার ভিডিও হয়ে থাকে তাহালে অবশ্যই ইউটিউব আপনার ভিডিওকে দেখাবে। আপনি যদি ইউটিউবকে ভিডিও টপিক বুঝাতে পারেন তাহালে খুব সহজে ইউটিউব প্রচুরসংখ্যক ট্রফিক বা ভিজিটর্স দিবো।

ব্লগিং এ কীওয়ার্ড রিসার্চ (Keyword research) কেন জরুরি

আর আপনি যদি YouTube SEO না করে গুগল বা ইউটিউব কে বুঝাতে না পারেন তাহালে কখনো গুগল বা ইউটিউব আপনার ভিডিও ভিজিটর্সদের সামনে দেখাবে না। এতে আপনি ট্রফিক বা ভিজিটর্স পাবেন না।

এখন তো আপনি খুব ভালো ভাবে বুঝে গেছেন YouTube ভিডিও SEO কেন জরুরি। এজন্য আপনারা অবশ্যই ভিডিও seo করবেন।

কি ভাবে YouTube  ভিডিও এস ই ও (SEO) করবেন?


আমার এই আর্টিকেলটি সম্পর্ন পড়লে আপনারা পুরোপুরি ভাবে বুঝতে পারবেন কি ভাবে ভিডিও এস ই ও (SEO) করবেন। এবং কি করে ভিডিও রেংকে নিয়ে আসবেন। কারণ আমি আজ সব বিরস্তিত (Details) বিষয়ে বলবো।

আমি আগে বলেছি seo ব্যবহার করে ভিডিও আপলোড করবেন। কিন্ত তার আগে আপনি একটু জেনে নিবেন যে বিষয়ে আপনি ভিডিও তৈরি করছেন আসলে ঔ বিষয়ের টপিকের উপর ইউটিউবে কেমন সার্চ হচ্ছে। যদি বেশি পরিমানে সার্চ না পড়ে তাহালে কিন্ত SEO করেও কোনো লাভ হবে না।

কোন টপিক, কীওয়ার্ড (Keyword) ইউটিউবে বেশি সার্চ হয়?


আপনি যে টপিক নিয়ে ভিডিও তৈরি করবেন সেই বিষয়ে কেমন সার্চ প্রতিমাসে পড়ছে ইউটিউবে সেটা একটি ছোট অনলাইন টুল (online tool) এর মাধ্যমে জানতে পারবেন। এই অনলাইন টুলের নাম হচ্ছে- "Keyword Everywhere Extension" এই tool ব্যবহার করে সহজে জানতে পারবেন টপিক কত সার্চ পড়ছে মাসে।

"Keyword Everywhere Extension"কি ভাবে ব্যবহার করবেন?


 "Keyword Everywhere Extension" এই tool আপনি extension নিজের কম্পিটার বা ল্যাপটপের chrome browser অথবা firebox browser এ ইনস্টল করে নিবেন। মনে রাখবেন এটা কিন্ত extension ইনস্টল করবেন।

তার পরে আপনার ইউটিউবের সার্চ বাটুনে গিয়ে আপনার ভিডিও অথবা কীওয়ার্ড বিষয়ে সার্চ দিবেন। এতে আপনি দেখতে পাবেন আপনার ভিডিও টপিকের বিষয়ে অথবা keyword বিষয়ে প্রতি মাসে কেমন সার্চ পড়ছে ইউটিউবে।

এ থেকে আপনি আর একটি খুব ভালো সুবিধা পেয়ে যাবেন সেটা হচ্ছে অনেক গুলো কীওয়ার্ড পেয়ে যাবেন। এই কীওয়ার্ড গুলো আপনার ভিডিওতে ব্যবহার করলে ভালো মানের SEO হয়ে যাবে।
SEO কি? SEO কাকে বলে? SEO কত প্রকার ও কি কি? (SEO Bangla Tutorial)

আপনারা সার্চ করার পর এমন দেখতে পাবেন ১৮০০/mo. এর মানে হচ্ছে ইউটিউবে প্রতি মাসে ১৮০০ মানুষ এই টপিকের উপর সার্চ করছে। মনে রাখবেন প্রতি মাসে যদি ১০০০/mo এর কম হয় তাহালে আপনি সেই টপিকের উপর ভিডিও তৈরি করে লাভোবান হতে পারবেন না।

YouTube Video SEO করুন এবং ভিডিও রেংক করান


আপনাদের কে আমি আগেও বলেছি ইউটিউব ভিডিও seo করার কথা। এতে করে আপনারা প্রচুরসংখ্যক ট্রফিক বা ভিজিটর্স পাবেন। নিচে আমি ভিডিও seo এর প্রয়োগ বলবো। আপনারা সেই অনুসারে এস ই ও (SEO) করবেন

(১) ভিডিও টপিকের কীওয়ার্ড বেছেনিন


আপনারা ভিডিও seo করার জন্য অবশ্যই keyword বেছেনিবেন। মনে রাখবেন কীওয়ার্ড ছাড়া কিন্ত এস ই ও (SEO) করা যায় না। তার জন্য প্রথমে ভিডিও তৈরি করবেন তার পরে সেই ভিডিও টপিক অনুসারে keyword রিসার্চ করবেন।  এর পর আবার ঔ কীওয়ার্ড দিয়ে ভিডিও seo করবেন।

বর্তমানে কীওয়ার্ড রিসার্চ করার জন্য অনলাইনে বিভিন্ন প্রকার tool পাওয়া যায়। তার মধ্যে অধিক অংশ tool পেইড। ফ্রি tool দিয়ে ও ভালো ভালো keyword বের করা যায়। আমি নিচে কয়েকটি ফ্রিতে কীওয়ার্ড রিসার্চ tool এর নাম উল্লোখ করছি। আপনার চাইলে সেগুলো ব্যবহার করে keyword নিতে পারেন।


  • google keyword planner
  • keywordtool.io
  • google search Suggestion


এই tool গুলো ব্যবহার করে আপনি খুব সহজে কীওয়ার্ড রিসার্চ করতে পারবেন। এই keyword ভিডিওতে ব্যবহার করে খুব সহজে প্রচুরসংখ্যক ট্রফিক বা ভিজিটর্স পাবেন।


(২) ভিডিও Title এবং Description এ keyword ব্যবহার করা


আপনি সব সময় ভিডিও  ইউটিউব এ আবলোড করার সময় Title Description আপনার টার্গেট করা কীওয়ার্ড গুলো ব্যবহার করবেন। এতে করে ভিডিও ভালো ভাবে seo হবে। মনে রাখবেন title এ ২৫ টির মতো শব্দ ব্যবহার করবেন। এবং আপনার টার্গেট করা গুলোর মধ্যে থেকে ২ থেকে ৩ টা ব্যবহার করবেন।

আর Description এ keyword ব্যবহার করবেন। একটি ভিডিও কিন্ত title এবং description এর উপর নির্ভর করে সার্চ লিস্টে রেংক করে। এর জন্য কীওয়ার্ড গুলো ভিডিও description ব্যবহার  করবেন। মনে রাখবেন নিচের কিছু কথা-


  • ভিডিও Description এ ৩০০ থেকে ৩৫০ শব্দ ব্যবহার করবেন।
  • ভিডিও এর title এ ২৫ টির মতো শব্দ ব্যবহার করবেন।
  • নিজের focus করা কীওয়ার্ড ৩ থেকে ৪ বার ব্যবহার করবেন।


মনে করেন আমি একটি ভিডিও তৈরি করছি YouTube SEO  নিয়ে। তখন তার title মেইন কীওয়ার্ড focus করে দিবেন।

উদাহরণঃ


  • ইউটিউব এস ই ও টিপস
  • YouTube SEO Tips Bangla
  • ইউটিউবে SEO কি ভাবে করবেন
  • YouTube Video SEO Bangla Tutorial


এমন সব title দিবেন যাবে গুগলে সহজে ভিডিও সার্চ লিস্টে চলে আসে। আর সব সময় কীওয়ার্ড ব্যবহার করবেন।

(৩) নিজের ভিডিওতে SEO Tag ব্যবহার করবেন


ইউটিউবে ভিডিও আবলোড করার পরে title এবং  description লেখার পরে আপনাকে আরে একটি গুরুত্বপূর্ণ option দেওয়া হবে। সেটার নাম হচ্ছে ভিডিও ট্যাগ (Video Tag). এই ভিডিও ট্যাগ ভিডিও এর রেংক বাড়ানোর জন্য খুবই কার্যকরী ভূমিকা পালন করে।

এই tag ব্যবহারের ফলে সহজে ভিজিটর্সরা ভিডিও গুলো সার্চের মাধ্যমে পেয়ে যায়। আপনারা সব সময় ভিডিওকে গুগল সার্চ ইউটিউব সার্চ এবং অনন্যা সার্চ ইঞ্জিনে রেংক করার জন্য High কোয়ালিটির ট্যাগ (Tag) ব্যবহার করবেন। এতে প্রচুরসংখ্যক ট্রফিক বা ভিজিটর্স ফ্রিতে পেয়ে যাবেন।

(৪) ভিডিও আপলোড করার আগে ভিডিও File Name পরিবর্তন করুন


আপনি যে ভিডিওটি ইউটিউবে আবলোড করবেন  ঔ ভিডিওটির File name পরিবর্তন করে যে বিষয়ে ভিডিও তৈরি করছেন সেই বিষয়ে seo friendly নাম দিয়ে দিন। আর ফাইল নামের সাথে আপনার টার্গেট করা কীওয়ার্ড যুক্ত করে দিন।

আমরা প্রথমে যখন ভিডিও তৈরি করি তখন ভিডিও এর নাম এমন থাকে m00782vi, video.mp4 তার পরে এই নামকে পরিবর্তন করে আপনার ভিডিও টফিকের উপর নাম দিবেন।

মনে করেন, আমি YouTube SEO টপিকের উপর একটি ভিডিও তৈরি করেছি। ভিডিও তৈরি করার  পরে default সেই ভিডিও এর নাম থাকে m00782vi.video.mp4 এবার এই নামকে পরিবর্তন করে নাম দিতে হবে আপনার ভিডিও টপিকের keyword অনুসারে।
যেমন-


  • কি ভাবে ইউটিউব ভিডিও SEO করবেন
  • YouTube SEO Bangla Tutorial


এতে আপনার ভিডিও খুব সহজে seo হয়ে যাবে আর প্রচুরসংখ্যক ফ্রিতে ট্রফিক বা ভিজিটর্স পাবেন।

(৫) ভিডিও লম্বা এবং Details তৈরি করবেন


আপনি যে বিষয়ে ভিডিও তৈরি করেন না কেন সব সময় বড়ো লম্বা ভিডিও তৈরি করার চেষ্টা করবেন। আর ভিডিও এর মধ্যে সমস্তকিছু বিরস্তিত ভাবে আলোচনা করবেন। এতে গুগল আপনাকে ভালো দেখে। আর মানুষরা যেন আপনার একটা ভিডিও দেখে সব বিষয়ে বিরস্তিত বুঝতে পারে।

কমপক্ষ ১০ থেকে ১২ মিনিটের বেশি ভিডিও তৈরি করবেন। লম্বা ভিডিও গুলো ইউটিউব এবং গুগল সহজে রেংকে নিয়ে যায়। আর ভিজিটর্সরা ও ভিডিওটা বেশি সময় দেখার ফলে খুব সহজে ঔ ভিডিওকে সার্চ ইঞ্জিনে রেংক পেয়ে যায়।

সর্বশেষঃ


আমার আর্টিকেলটি পড়ার পড়ে আপনারা অবশ্যই খুব সহজে বুুঝতে পারছেন যে ইউটিউব SEO কি? এবং ইউটিউব ভিডিও কি ভাবে SEO করবেন। আপনি যদি উপরের নিয়ম মেনে ভিডিও SEO করতে পারেন তাহালে আপনি সফল হবেন ইউটিউবে। আর ভিডিওতে প্রচুরসংখ্যক ট্রফিক বা ভিজিটর্স পাবেন সম্পর্ন ফ্রিতে।

আমার আর্টিকেলটি সম্পর্ন পড়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। কোনো বিষয়ে বুঝতে সমস্যা হলে নিচে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। ইনশাল্লাহ আমি উওর দিবো। ধন্যবাদ

2 comments: