নতুন ব্লগাররা যে মারাত্মক ভুল করছে (Blog Mistake) - ABC Media BD

Breaking

Thursday, November 7, 2019

নতুন ব্লগাররা যে মারাত্মক ভুল করছে (Blog Mistake)

নতুন ব্লগাররা যে মারাত্মক ভুল করছে (Blog Mistake)
নতুন ব্লগাররা যে মারাত্মক ভুল করছে (Blog Mistake)


আপনার ব্লগে ট্রাফিক বা ভিজিটর্স আসছে না। আপনি অনেক ভাবে চেষ্টা করছেন কিন্ত কোনো ভাবে ট্রাফিক বা ভিজিটর্স নিয়ে আসতে পারছেন না। আপনার মনে হচ্ছে আপনি গুগল সার্চ থেকে ট্রাফিক বা ভিজিটর্স নিয়ে আসা অসম্ভব হয়ে পড়ছে। তাহালে আপনি নতুন ব্লগার হিসাবে এমন মারাত্মক ভুল Blog Mistake করছে যাতে করে ব্লগে ট্রাফিক বা ভিজিটর্স আসছেনা।

আপনি নতুন হিসাবে ব্লগে কাজ শুরু করার পরে নিজের অজানতে অনেক ভুল হয়ে যায়। আপনাকে বিভিন্ন ধরনের ভুল হতে পারে ব্লগে। ব্লগের এই সব নানা ধরনের ভুলের কারণে গুগল সার্চে ট্রাফিক বা ভিজিটর্স আসতে চাই না।

এর জন্য অনেক ব্লগাররা ৫ থেকে ৬ টা আর্টিকেল ব্লগে পাবলিশ করার পরে ট্রাফিক বা ভিজিটর্স না পেয়ে তাদের ব্লগিং ক্যারিয়ার নষ্ট হয়ে যায়। তারা হতাশ হয়ে পরে। এই সব ভুল গুলো আমাদের জানতে হবে এবং এদের কাছ থেকে শিক্ষা নিতে হবে। যাতে দ্বিতীয় বার এই রকমের ভুল না হয়।

আপনি একজন প্রফেশনাল ব্লগার হতে চাইলে শুধু ব্লগে আর্টিকেল লিখলে হবে না। আপনার মনে ধ্যান রাখতে হবে সেই সব ভুল গুলো করা চলবে না যাতে গুগল সার্চ থেকে ট্রাফিক বা ভিজিটর্স না আসে।

ব্লগারদের জন্য 6 টি সেরা থিম ও টেমপ্লেট

আজ আমি আপনাদের সাথে এমন কিছু মারাত্মক ভুলের কথা বলবো, যে সব ভুল গুলো একজন নতুন ব্লগার হিসাবে আপনি ও করছেন। আর যার কারনে গুগল সার্চ থেকে ব্লগে ট্রাফিক বা ভিজিটর্স আসা অসম্ভব।

সর্বদা মনে রাখবেন, একজন সফল ব্লগার হতে চাইলে কোনো ভুল করলে চলবে না। ভুল গুলো বের করে সমাধানের চেষ্টা করুন। দেখবেন আপনি খুব সহজে একজন সফল ব্লগার হয়ে যাবেন। আর গুগল সার্চ থেকে ভালো পরিমান ট্রাফিক বা ভিজিটর্স পাবেন।

সফল ব্লগার কাদের বলে। বা প্রফেশনাল ব্লগার মানে কি? সফল বা প্রফেশনাল ব্লগার বলতে আমরা সাধারনত যা বুঝি- "যে বা যারা ব্লগ থেকে প্রতি মাসে প্রচুর  টাকা ইনকাম করছে এবং তাদের ব্লগ সাইটে লক্ষ লক্ষ ট্রাফিক বা ভিজিটর্স নিয়ে আসতে সক্ষম হচ্ছে তাদের কে বলা হয় সফল বা প্রফেশনাল ব্লগার।

আমরা সবাই একজন সফল বা প্রফেশনাল ব্লগার হতে চাই। কিন্ত এমন সব ভুল ব্লগে করে থাকি যে ভুল আমাদের নিজের অজানতে হয়ে যায়। আর যার কারনে আমাদের ব্লগের স্বপ্ন পূরন হয় না। স্বপ্ন শুধু স্বপ্ন থেকে যায়।

তাই, আজ আমি নিচে সেই সব ভুল গুলোর কথা আলোচনা করবো। আপনারা মনোযোগ দিয়ে পড়বেন এবং বুঝার চেষ্টা করবেন। আর আপনাদের মধ্যে যদি এমন ভুল থাকে তাহালে সমাধানের চেষ্টা করবেন।

(১) লো কোয়ালিটির ডোমেইন হোস্টিং ব্যবহার করাঃ


একটি ব্লগ সাইট বা ওয়েবসাইট লো কোয়ালিটির ডোমেইন এবং হোস্টিং ব্যবহার করার জন্য সম্পর্ন ভাবে দায়ী থাকে। আর আমরা প্রথমে এই ভুলটা শতকারা ৮৫% মানুষ করে থাকি। আমরা কখনো লো কোয়ালিটির ডোমেইন হোস্টিং ব্যবহার করবো না। কারণ হোস্টিং এর ব্যবহার লো থাকার কারনে ওয়েবসাইট স্লো হয়ে যায়। ব্লগের লোডিং স্পিড কম হয়ে যায়। যার কারণে ব্লগ বা ওয়েবের সার্ভার অধিক পরিমানে ডাউন থাকে।

এতে গুগল সার্চ ভাবে আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইট লো কোয়ালিটির। এতে গুগল সার্চ ট্রাফিক বা ভিজিটর্স আসার সম্ভবনা শতকারা ৭০% কমে যায়। গুগল সব সময় চাই আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইট হাই কোয়ালিটির ডোমেইন হোস্টিং। হাই কোয়ালিটির ডোমেন যেমন-. Com . Org  . Net  . info  . Bd   ইত্যাদি।

একটা ব্লগ বা ওয়েবসাইট তৈরি করার সময় সর্বদা মনে রাখবেন কখনো লোকাল এবং সস্তা ওয়োব হোস্টিং কিনবেন না। আর সব সময় ভালো কোয়ালিটির এবং ভালো মানের নামকরা ব্র্যান্ডেড হোস্টিং কোম্পানির কাছ থেকে কিনার চেষ্টা করবেন। কারণ তাদের সার্ভিস গুলো ভালো হয়।

কি ভাবে সহজে Gmail Account খুলবেন

(২) ফ্রি ডোমেইন নাম ব্যবহার করবেন নাঃ


আপনি যদি সফল এবং প্রফেশনাল ভাবে ব্লগিং করতে চান তাহালে কখনো ফ্রি ডোমেইন ব্যবহার করবেন না। আপনি প্রথমে যখন ব্লগ থেকে ব্লগার ওয়েবসাইট খুলবেন তখন সবাই Blogspot.com নামে তাদের Url ব্যবহার করে। কিন্ত মনে রাখতে হবে এটা ফ্রি সার্ভিস। এই ফ্রি সার্ভিস থেকে আপনি কখনো ভালো ট্রাফিক বা ভিজিটর্স পাবেন না।

তার জন্য আপনাকে প্রিমিয়াম ডোমেইন কিনতে হবে। প্রিমিয়াম ডোমেইন বলতে আমরা বুঝি যেমন- . Com  . Net  . Org  . info  . in ইত্যাদি। এই সব ডোমেইন গুলো আপনারা অনেক কম টাকায় কিনতে পারবেন। এর দাম পড়তে পারে ৩৫০ টাকা থেকে ৯০০ টাকার মধ্যে। আপনি যেমন কিনবেন তেমন দাম পড়বে।

আর আপনারা সব সময় ভালো ডোমেইন কোম্পানির কাছ থেকে কিনার চিন্তা করবেন। এতে ভালো সার্ভিস পাবেন। কোনো প্রকার সমস্যা হলে তাদের সাথো যোগাযোগ করলে তারা আপনাকে সমাধান দিবে।

তাই, অল্প কিছু টাকার জন্য ফ্রি Blogspot.com ডোমেইন ব্যবহার করবেন না। আপনি যখন প্রিমিয়াম ডোমেইন ব্যবহার করবেন তখন ব্লগ বা ওয়েবসাইটে ভালো পরিমানে ট্রাফিক বা ভিজিটর্স পাবেন। আর ফ্রি ডোমেইন ব্যবহার করলে গুগল সার্চ আপনাকে ট্রাফিক বা ভিজিটর্স দিবে না। আর সব চেয়ে বড়ো কথা ফ্রি ডোমেইন আপনার ক্যারিয়ারে সফলতা না পাবার বড় কারণ হয়ে দাড়াতে পারে।

(৩) ফ্রি লো কোয়ালিটির থিম ব্যবহার করাঃ


ব্লগ বা ওয়ার্ডপ্রেস সাইটে কখনো ফ্রি থিম ব্যবহার করবেন না। ফ্রি থিম গুলো স্লো থাকে। যাতে করে গুগল সার্চ থেকে ট্রাফিক বা ভিজিটর্স আসার সম্ভবনা কমে যায়। আমি আগেও বলেছি যে গুগল সব সময় প্রিমিয়াম, পরিস্কার এবং ফাস্ট ব্লগ বা ওয়ার্ডপ্রেস সাইট পছন্দ করে।

লো কোয়ালিটির থিমে কখনো ভালো মানের কোড থাকে না। আর এই থিম গুলো আবডেট আসার সম্ভবনা খুব কম থাকে। ফ্রি থিম গুলো Independent Devlopers রা বেশি তৈরি করে থাকে। যার জন্য এর কোয়ালিটির ভালো থাকে না। ফলে আপনার সাইটে স্লো কাজ করে।

তার জন্য আপনি যদি ফ্রি থিম ব্যবহার করে থাকেন তাহালে কিছু টাকা দিয়ে প্রিমিয়াম থিম কিনার ব্যবস্থা করুন। ৫০০ থেকে ৮০০ টাকার মধ্যে আপনি মোটামোটি ভালো একটি থিম কিনতে পারবেন।

প্রিমিয়াম থিমের মধ্যে কিছু এডভ্যান্সড ফিচারস এবং ফাশ্কশন (Functions) থাকে। যে গুলো ফ্রি থিমের মধ্যে থাকে না। আর প্রিমিয়াম থিমের কোয়ালিটির সব সময় High থাকে। কোয়ালিটির High থাকার কারনে প্রচুর ফাস্ট হয়।

ব্লগ ফ্রি থিমঃ


আর আপনারা যদি ব্লগে ফ্রি থিম ব্যবহার করতে চান তাহালে "NeedMaga" নামে একটি থিম রয়েছে। এটা ফ্রি হলে ও ভালো মানের থিম। আমি প্রথমে এই থিম ব্যবহার করতাম। এটা আমার খুব পছন্দের একটি থিম। আপনারা চাইলে ব্যবহার করতে পারেন কিন্ত পরে প্রিমিয়াম থিম ব্যবহার করবেন।

ওয়ার্ডপ্রেস ফ্রি থিমঃ


আপনাদের যদি ওয়ার্ডপ্রেস সাইট হয়ে থাকে তাহালে, ওয়ার্ডপ্রেস সাইটের জন্য আমার একটি পছন্দের থিম রয়েছে। যার নাম হচ্ছে "OceanWP"
এটা মোটামোটি ভালো এবং প্রচুর ফাস্ট। আমার নিজের মতে "OceanWP" একটি ভালো থিম। আপনারা চাইলে ব্যবহার করতে পারেন কিন্ত পরে একটি প্রিমিয়াম থিম কিনবেন।


(৪) দৃঢ়তা নিয়ে কাজ করুনঃ


আমি এমন অনেক ব্লগ সাইট দেখছি যেখানে মাসে ২ থেকে ৩ টা আর্টিকেল পাবলিশ করা হয়। এরকম দেরি করে আর্টিকেল পাবলিশ করাটা একটি মারাত্মক ভুল। আপনি যদি গুগল সার্চ থেকে ট্রাফিক বা ভিজিটর পেতে চান তাহালে রেগুলার আর্টিকেল পাবলিশ করতে হবে।

আপনাকে দৃঢ়তার সাথের কাজ করতে হবে। তা না হলে আপনি কোনো ভাবে সফল হতে পারবেন না। তার জন্য অনন্ত প্রতি সপ্তহে ৩ টা করে আর্টিকেল পাবলিশ করুন। যখন রেগুলার আর্টিকেল পাবলিশ করবেন তখন গুগল আপনার দিকে নজর দিবে এবং গুগল সার্চ থেকে ট্রাফিক আসার সম্ভবনা বেড়ে যায়।

(৫) লো কোয়ালিটির আর্টিকেল চলবে নাঃ


আপনাকে সব সময় লো কোয়ালিটির আর্টিকেল লিখলে হবে না। আমি এমন অনেক ব্লগারদের দেখছি যারা আর্টিকেল লেখার নিয়মের মধ্যে আর্টিকেল লিখতে পারে না। এমন সব ভুলের জন্য তাদের আর্টিকেল লো কোয়ালিটির মধ্যে পড়ে যায়।

গুগল কখনো এমন আর্টিকেল পছন্দ করে না। এতে গুগল সার্চ থেকে ট্রাফিক বা ভিজিটর্স পাওয়া খুবই কঠিন। তার জন্য ব্লগের নিয়ম মেনে আর্টিকেল লিখবেন।

কি ভাবে ব্লগে সহজে এডসেন্স পাওয়া যায়

হাই কোয়ালিটির আর্টিকেল লেখার নিয়মঃ



  •  অধিক ছোট আর্টিকেল লিখলে চলবে না। মিনিমাম ১০০০ ওয়ার্ড নিয়ে আর্টিকেল লিখতে হবে।



  •  সব সময় আর্টিকেল ছোট ছোট প্যারায় লেখার চেষ্টা করবেন। এতে ভিজিটর্সদের পড়তে সুবিধা হয়। দেখতে ও ভালো লাগে।



  •  যে সম্পর্কে আর্টিকেল পাবলিশ করবেন সেই সম্পর্কে একটি ছবি আবলোড করবেন।



  •  আর্টিকেলের মধ্যে H ট্যাগ ব্যবহার করবেন। যেমন- H1, H2, H3, H4 ইত্যাদি।


এই ভাবে আর্টিকেল লিখলে গুগল পছন্দ করে এবং দ্রুত Rank পাবা যায়। মনে রাখবেন সুন্দর আর্টিকেল লেখাটা হলো ব্লগের পরিচয়।

সর্বশেষঃ

যারা নতুন ব্লগ শুরু করছেন তারা উপরের ভুল Blog Mistake গুলো করে থাকে। এই সব ভুলের কারণে গুগল সার্চ থেকে ট্রাফিক বা ভিজিটর্স আসে না। আপনার ব্লগে যদি ট্রাফিক বা ভিজিটর্স না আসে তাহালে দেখুন আপনি ও এই ভুল গুলো করছেন কি না।

আমার আর্টিকেলটি পড়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। কোনো বিষয়ে বুঝতে অসুবিধা হলে নিচে কমেন্ট করে জানাবেন। আমি ইনশাল্লাহ উওর দিবো।

No comments:

Post a Comment