ব্লগে কি ভাবে আর্টিকেল লিখতে হয়? আর্টিকেল লেখার নিয়ম - ABC Media BD

Breaking

Wednesday, November 6, 2019

ব্লগে কি ভাবে আর্টিকেল লিখতে হয়? আর্টিকেল লেখার নিয়ম

ব্লগে কি ভাবে আর্টিকেল লিখতে হয় আর্টিকেল লেখার নিয়ম
ব্লগে কি ভাবে আর্টিকেল লিখতে হয় আর্টিকেল লেখার নিয়ম


কেমন আছেন সবাই? আশা করি সবাই ভালো আছেন। আপনারা হয়তো আমার আর্টিকেলের টাইটেল দেখে বুঝতে পারছেন যে আজকে কি বিষয়ে আপনাদের সাথে আলোচনা করবো। হা আজকে আমি আপনাদের সাথে ব্লগে আর্টিকেল লেখার নিয়ম নিয়ে আলোচনা করবো। ব্লগে কি ভাবে বা কি নিয়মে আর্টিকেল লিখলে দ্রুত Successful হওয়া যায়। সেই নিয়ম গুলো আমার ব্যাক্তিগত Express থেকে  আজকে আপনাদের সাথে শেয়ার করবো। আসলে ব্লগে আমরা তো সবাই আর্টিকেল লিখে থাকি কিন্ত কিছু নিয়মে আর্টিকেল লিখলে ভিজিটর্স খুব সহজে আপনার আর্টিকেলটি বুঝতে পারে। আর সাথে সাথে গুগল সার্চ ইঞ্জিনে আপনার আর্টিকেল ভিজিটর্সদের সামনে নিয়ে আসে।

তাই ব্লগে আর্টিকেল লেখার নিয়ম জানাটা আপনার খুব জরুরি একটি বিষয়। শুধু ব্লগে আটিকেল লিখলে হবে না, ভিজিটর্স এবং গুগল সার্চ ইঞ্জিন যেন আপনার আর্টিকেলটি পছন্দনীয় হয় সেদিকে ও নজর দিতে হবে। নিচে এমন কয়েকটি বিষয় উল্লেখ করছি-

আর্টিকেল লিখবেন Expect হিসাবেঃ


আপনি যখন একটি আর্টিকেল লিখবেন তখন নিজেকে Expect হিসাবে তৈরি করে তার পরে আর্টিকেল লেখা শুরু করবেন। সহজ ভাবে বলতে গেলে আপনি যে বিষয়ে আর্টিকেল লিখবেন সেই বিষয়ে আপনাকে Expect হতে হবে। মনে করেন, আজ আপনি যে বিষয়ে আর্টিকেল লিখলেছ এই বিষয়ে অন্যরা আগে ব্লগে আর্টিকেল লেখা হয়ে গেছে। বিশ্বাষ না হয় গুগলে গিয়ে সার্চ দিয়ে দেখুন। তাহালে আপনার মনে এখন অবশ্যই প্রশ্ন তৈরি হয়েছে যে তাহালে আপনার আর্টিকেল কেন গুগল সার্চ ইঞ্জিন দেখাবে?

উওরঃ

আপনাকে আর্টিকেল লেখায় Expect হতে। অন্যরা যে ভাবে আর্টিকেল লিখছে আপনাকে তার চেয়ে বিরস্তিত লিখতে হবে। মোট কথা আপনাকে আর্টিকেলের বিষয়ে সমস্ত Details ভাবে লিখতে হবে। মনে করেন আপনি একটি ব্যাক্তির নিয়ে আর্টিকেল লিখছেন। সেই ব্যাক্তির Details আপনি আর্টিকেলে তুলে ধরবেন। যখন গুগল সার্চ ইঞ্জিন দেখবে আপনার আর্টিকেলে Details সব বিষয়ে রয়েছে তখন গুগল সার্চ ইঞ্জিন আপনার আর্টিকেলটি ভিজিটর্সদের সামনে তুলে ধরবে। আশাকরি আপনারা বুঝতে পারছেন।

আর্টিকেলে প্রশ্ন ছিন্ন,কমা, Bold Heading ব্যবহার করুনঃ


আপনার ব্লগে আর্টিকেলকে সুন্দর এবং আআকর্ষণীয় করার জন্য আর্টিকেলে প্রশ্ন ছিন্ন, কমা, Blod Heading সর্বদা ব্যবহার করুন। আমার আর্টিকেলে আপনারা দেখতে পাচ্ছেন আমি যেমন মাঝে মাঝে ব্যবহার করছি। আপনারা ও এমন ভাবে ব্যবহার করবেন।

এতে ভিজিটর্সদের আর্টিকেল পড়তে সুবিধা হয়। তারা সহজে বুঝতে পারে। আর আর্টিকেলে প্রশ্ন ছিন্ন, কমা, Bold Heading ইত্যাদি ব্যবহার করলে গুগল সার্চ এবং গুগল সার্চ ইঞ্জিন পছন্দ করে। আর তাদের যখন এমন আর্টিকেল পছন্দ হবে তখন তারা দ্রুত আপনার সাইট Rank করতে সাহায্য করে।

আর আপনি যখন আর্টিকেল লিখবেন তখন অবশ্যই H1 Bold Heading,  H2 Bold Heading,   H3 Bold Hearing,  H4 Bold Heading,  H5 Bold Heading ভাবে যতগুলো পয়েন্ট থাকবে সে গুলো সব এই ভাবে দিবেন। এতে আপনার আর্টিকেলটি সুন্দর দেখাবে এবং ভিজিটর্সদের পড়তে সহজ হবে।

কি ভাবে উইটিউব চ্যালেন তৈরি করবেন

আর্টিকেলে অবশ্যই ছবি ব্যবহার করুনঃ


আর্টিকেল লেখার প্রথমে বা লেখার মধ্যে আপনি একটা দুইটা ছবি ব্যবহার করবেন অবশ্যই। কারণ আর্টিকেলে ছবি ব্যবহার করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ছবির কারনে আর্টিকেল বেশি আকর্ষনীয় হয়ে উঠে। আপনাকে সব সময় মনে রাখতে হবে আপনি যে বিষয়ে আর্টিকেল লিখছেন সে বিষয়ের উপর ছবি দিতে হবে। যেমন- আপনি কম্পিউটার সম্পর্কে আর্টিকেল লিখছেন। অবশ্যই আপনাকে কম্পিউটার এর ছবি দিতে হবে। এখনে আপনাকে একটি ফুলের ছবি বা আপনার ছবি দিলে হবে না।

মনে রাখবেন কখনো কপি করা ছবি যেমন- গুগল থেকে  ডাউনলোড করে দিলে অনেক সময় আপনাকে কপিরাইট ধরতে পারে তার জন্য সর্বদা Reall ছবি দিবেন। তাছাড়া আপনি গুগল থেকে যে ছবি ডাউনলোড করতে চাচ্ছেন সেই ছবির  PNG ছবি ডাউনলোড করে নিজে এডিট করে আর্টিকেলে দিতে পারেন। এতে কপিরাইট হবে না।

আর আপনি যদি মনে করেন না আমি গুগল থেকে ছবি নিয়ে আর্টিকেলে দিবো তাহালে তার জন্য গুগলে অনেক ফ্রি ছবির সাইট রয়েছে। সেখান থেকে ছবি ডাউনলোড করে নিয়ে দিতে পারেন। এই সাইট থেকে ছবি নিলে কপিরাইট ধরবে না। এমন একটি ফ্রি ছবির সাইটের নাম নিচে উল্লেখ করছি।

shutterstock.com


এছাড়া আরো অনেক ফ্রি ছবির সাইট রয়েছে। আপনারা গুগলে গিয়ে সার্চ দিবেন Free Image Site লিখে। দেখবেন অনেক গুলো সাইট চলে আসবে। বিশ্বের সব চেয়ে ছবির জনপ্রিয় ফ্রি সাইট হচ্ছে

shutterstock.com


আর্টিকেলে ছবি এড করার আগে আপনি ছবি Rename এবং ছবির Details, Tag এ আপনার আর্টিকেলের টাইটেল এড করে দিবেন। সাথে আপনার সাইটের নাম ও দিয়ে দিবেন। আর্টিকেলে ছবি আপলোপ করার পরে ছবির নিচে captain এবং property একই নাম দিবেন। এতে দ্রুত আপনার সাইট Rank করবে।

ব্লগে সোজাভাবে আর্টিকেল লিখবেনঃ


আপনাকে সব সময় মনে রাখতে হবে আপনি ব্লগে যে আর্টিকেল লিখবেন সেটা যেন মানুষ খুব সহজে বুঝতে পারে। আপনি একটি আর্টিকেল লিখলেন আর মানুষ সেটা বুঝতে পারলো না তাহালে এই আর্টিকেল লেখার কোনো মানে হয় না। আপনি আর্টিকেল লিখবেন মানুষের বেঝানোর জন্য। মানুষ যদি বুঝতে না পারে তাহালে আপনি কখনো সফল হতে পারবেন না।

সব সময় ব্লগে সহজ ভাবে আর্টিকেল লেখার চেষ্টা করতে হবে। বুঝার জন্য আপনি ছোট ছোট (Paragraph) আকারে লিখতে পারেন। আমি যে ভাবে লিখছি। আপনি যদি বড় করে (Paragraph) লিখেন তাহালে ভিজিটর্সদের পড়তে অসুবিধা হবে। আপনি যতটা সম্ভব ছোট ছোট (Paragraph) আকারে লেখার চেষ্টা করবে। এবং Bold Heading, কমা, প্রশ্ন ছিন্ন, কলেন, হাইপেন ইত্যাদি ব্যবহার করুন।

নিয়মিত ব্লগে আর্টিকেল লিখবেনঃ


আপনাকে একটা বিষয়ে অবশ্যই নজর দিতে হবে যে আপনাকে নিয়মিত ব্লগে আর্টিকেল লিখতে হবে। প্রতি সপ্তাহে থেকে টা আর্টিকেল লিখতে হবে। আপনি যখন নিয়মিত ভাবে ব্লগে আর্টিকেল লিখতে পারবেন তখন গুগল সার্চে আপনার ভিজিটর পাওয়ার সম্ভবনা খুব বেশি থাকে। কারণ গুগল চাই আপনার ব্লগ সাইটে নিয়মিত না হলেও সপ্তাহে কমপক্ষে থেকে টা আর্টিকেল পাবলিশ করেন। কম করে হলেও ৩ টা করবেন। তাহালে খুব সহজে গুগলে Rank পাবেন।

কি ভাবে গুগল এডসেন্স একাউন্ট খুলবেন

গুগলের সোজা কথা যারা নিয়মিত ব্লগে আর্টিকেল পাবলিশ করবেন তাদের গুগল সার্চ এ ভিজিটর দিবেন। আপনিও যদি এমন ভালো পরিমানে ভিজিটর নিয়মিত পেতে চান তাহালে নিয়মিত ব্লগে আর্টিকেল পাবলিশ করেন।

শুধু গুগল সার্চ আপনাকে ভিজিটর্স দিবে না বরং যারা আপনার সাইট ভিজিট করে তারাও সেই নতুন নতুন আবডেট পাবার জন্য নিয়মিত আপনার সাইট ভিজিট করবে। সকলের উদ্দেশ্য থাকবে নিয়মিত আপনার আপডেট গুলো পড়ার।

সর্বশেষঃ

আপনারা যদি উপরের লেখা অনুসারে ব্লগে আর্টিকেল লিখতে পারেন তাহালে খুব সহজে সফল হবেন। মনে করুন, ব্লগ একটি বই। আপনি একটি বই লিখছেন। সেই বইটি যদি মানুষের কাছে পড়ে ভাল লাগে তাহালে কিন্ত আপনার বইয়ের খুব জনপ্রিয়তা লাভ করবে। বইয়ের চাহিদা ও বৃদ্ধি পাবে। আর মানুষ অপক্ষেয় থাকবে কবে কবে আপনার আরেকটি নতুন বই বের হবে। ঠিক ব্লগ তেমন বইয়ের মতো।

আমার আর্টিকেলটি সম্পর্ন পড়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। কোনো বিষয়ে বুঝতে অসুবিধা হলে নিচে কমেন্ট করে জানাবেন। ধন্যবাদ

No comments:

Post a Comment